অধ্যাপক সিতারা পারভীন পুরস্কার পেলেন ঢাবি’র ১০ শিক্ষার্থী

ঢাবি করেসপন্ডেন্ট: ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের ২০১৮ সালের বিএসএস (সম্মান) পরীক্ষায় ভালো ফলাফল অর্জন করায় প্রথম ১০ শিক্ষার্থীকে ‘অধ্যাপক সিতারা পারভীন পুরস্কার’ প্রদান করা হয়েছে।

সোমবার (২৬ আগস্ট) বিশ্ববিদ্যালয়ের আর. সি. মজুমদার আর্টস মিলনায়তনে পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়। এ সময় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আখতারুজ্জামান শিক্ষার্থীদের হাতে পুরস্কারের সনদপত্র ও নগদ টাকার চেক তুলে দেন।

পুরস্কারপ্রাপ্ত শিক্ষার্থীরা হলেন- মেহজাবিন বশির তুলি, শারমিন জাহান জোহা, ফায়েজ আহমেদ, আবদুর রাজ্জাক সোহেল, তন্ময় সাহা জয়, নম্রতা তালুকদার অর্পা, তাহমিনা আক্তার জেনি, সুমাইয়া তানিম, শামিমা নাসরিন এবং মেহেরুন নাহার মেঘলা।

বিভাগের চেয়ারপার্সন অধ্যাপক ড. কাবেরী গায়েনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত অনুষ্ঠানে ‘অধ্যাপক সিতারা পারভীন স্মারক বক্তৃতা’ প্রদান করেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় আন্তর্জাতিক সম্পর্ক বিভাগের অধ্যাপক ও সেন্টার ফর জেনোসাইড স্টাডিজ-এর পরিচালক ড. ইমতিয়াজ আহমেদ। অনুষ্ঠানে অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন অধ্যাপক ড. আহাদুজ্জামান মোহাম্মদ আলী এবং মেহজাবিন বশির তুলি।

এ সময় উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আখতারুজ্জামান প্রয়াত অধ্যাপক সিতারা পারভীনের স্মৃতির প্রতি গভীর শ্রদ্ধা নিবেদন করে বলেন, অসাধারণ গুণাবলীর অধিকারী অধ্যাপক ড. সিতারা পারভীন ছিলেন একজন সৎ, আদর্শবান ও নিবেদিতপ্রাণ শিক্ষক। উপাচার্য পুরস্কার প্রাপ্তদের এবং তাদের পিতা-মাতাদের আন্তরিক অভিনন্দন জানান। তিনি অধ্যাপক ড. ইমতিয়াজ আহমেদকেও জেনোসাইড সংক্রান্ত সারগর্ভ বক্তব্য উপস্থাপনের জন্য আন্তরিক ধন্যবাদ জানান।

উল্লেখ্য, প্রাক্তন রাষ্ট্রপতি বিচারপতি শাহাবুদ্দীন আহমদের কন্যা এবং গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের অধ্যাপক ড. আহাদুজ্জামান মোহাম্মদ আলীর স্ত্রী অধ্যাপক ড. সিতারা পারভীন ২০০৫ সালের ২৩ জুন যুক্তরাষ্ট্রে এক মর্মান্তিক সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত হন। তার স্মৃতির উদ্দেশ্যে পরিবারের পক্ষ থেকে ঢাবি গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগে ‘অধ্যাপক সিতারা পারভীন পুরস্কার’ প্রবর্তন করা হয়।

প্রিন্ট করুন

বিভাগ: শিক্ষাঙ্গান