অনন্ত আকাশে মাথা তোলার বাসনায় মঙ্গল শোভাযাত্রা

জাতীয় ডেস্ক: অনন্ত আকাশে মস্তক তোলার বাসনায় শেষ হলো ১৪২৬ সনের বাংলা নববর্ষের মঙ্গল শোভাযাত্রা। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. আখতারুজ্জামান, উপ-উপাচার্য অধ্যাপক ড. মুহাম্মদ সামাদ, প্রক্টর অধ্যাপক ড. একেম গোলাম রব্বানী চারুকলা অনুষদের ডিন অধ্যাপক নিসার হোসেনের নেতৃত্বে রবিবার ( ১৪ এপ্রিল) সকাল ৯টায় চারুকলা থেকে মঙ্গল শোভাযাত্রাটি বের হয়। শোভাযাত্রাটি শাহবাগের ঢাকা ক্লাবের সামনে দিয়ে ঘুরে টিএসটি মোড় হয়ে ফের চারুকলার সামনে গিয়ে ৯টা ৪৫ মিনিটের দিকে শেষ হয়।

এবার শোভাযাত্রার প্রতিপাদ্য করা হয়েছে বিশ্বকবি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের ‘নৈবেদ্য’ কাব্যগ্রন্থের ৪৮ নম্বর কবিতার ‘মস্তক তুলিতে দাও অনন্ত আকাশে’ চরণ। বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক, শিক্ষার্থী ও বিভিন্ন স্তরের মানুষ স্বতঃস্ফূর্তভাবে অংশ নেন শোভাযাত্রায়।

সবাই বৈশাখের বিচিত্র সাজে নিজেদের রাঙিয়েছিলেন। মুখে রং তুলিতে লেখা ‘শুভ নববর্ষ ১৪২৬’, এসো হে বৈশাখ। ছেলেরা লাল-সাদা পাঞ্জাবি, মেয়েরা বৈশাখী শাড়ি পড়েছিলেন।

অনেকে মাথায় গামছা, আর লুঙ্গি পরে নিজেকে পুরো বাঙালিয়ানা সাজে সাজান। ছোট শিশুরাও অভিভাবকদের সঙ্গে যোগ দেয় বৈশাখ উদযাপনে। বাঁশি, একতারা, খেলনার ঢোল হাতে নিয়ে উল্লাস করেন। এছাড়া অংশ নিতে দেখা গেছে অনেক বিদেশি পর্যটক-সাংবাদিককে।

বরাবরের মতো শোভাযাত্রা ঘিরে নেওয়া হয় কঠোর নিরাপত্তা। আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা চার স্তরের নিরাপত্তার বলয় তৈরি করে। র‌্যালির সামনে পিছনে বিপুল সংখ্যক র‌্যাব সদস্য নিয়োজিত ছিলেন। শোভাযাত্রায় সারি করে বাঘ, ঘোড়া, উল্টা কলসি, পেঁচা, কাঠঠোকরা এবং বাঘ ও বকের প্রতিকৃতি সাজানো ছিল। সূত্র: ব্রেকিংনিউজ/

প্রিন্ট করুন

বিভাগ: জাতীয়