অপরাধ প্রমাণিত হওয়ায় তুরিনকে অপসারণ: আইনমন্ত্রী

বিডি সংবাদ টোয়েন্টিফোর ডটকম: পর্যাপ্ত তথ্য প্রমাণের ভিত্তিতে ব্যারিস্টার তুরিন আফরোজকে দায়িত্ব থেকে অপসারণ করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন আইন বিচারও সংসদ বিষয়ক মন্ত্রী আনিসুল হক। তিনি বলেন, অপরাধীর সঙ্গে তিনি যে কথা বলেছেন তার রেকর্ড আমাদের কাছে আছে। অডিওতে তার গলা প্রমাণিত হওয়ায় তাকে অপসারণ করা হয়েছে।

সোমবার (১১ নভেম্বর) দুপুরে সচিবালয়ের মন্ত্রণালয় নিজ পক্ষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের কবাবে তিনি এ কথা বলেন।

এরআগে তদান্তীন একটি মামলায় আসামির সঙ্গে সথোপকথনের বিষয়ে তদন্ত শেষে আজ ব্যারিস্টার তুরিন আফরোজকে প্রসিকিউটরের দায়িত্ব থেকে অব্যাহতি দেওয়া হয়। পেশাগত অসদাচরণ, শৃঙ্খলা ও আচরণ বিধি লঙ্ঘনের অভিযোগে আন্তর্জাতেক অপরাধ ট্রাইব্যুনালের প্রসিকিউটর পদ থেকে তাকে সরিয়ে দেওয়া হয়। আইন বিচার ও সংসদ বিষয়ক মন্ত্রণালয় থেকে এ তথ্য জানানো হয়।

উল্লেখ্য, মানবতাবিরোধী অপরাধের মামলায় গ্রেফতার ওয়াহিদুল হকের মোবাইল ফোনে থাকা দুই অডিও রেকর্ডের কারণে ফেঁসে যান তুরিন আফরোজ। রাজধানীর গুলশান থেকে ২০১৮ সালের ২৪ এপ্রিল জাতীয় নিরাপত্তা সংস্থা এনএসআইয়ের সাবকে মহাপরিচালক ওয়াহিদুল হককে গ্রেফতার করে পুলিশ।

ওই সময় তার মোবাইল ফোনটিও জব্দ করা হয়। সেটি পরীক্ষা করতে গিয়ে দুটি অডিও রেকর্ড পাওয়া যায়। ওই অডিওতে তার সঙ্গে তুরিনের যোগাযোগের তথ্য ছিল। সেই অডিও রেকর্ড দুটি কপি করে আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনালের তদন্ত সংস্থার কাছে হস্তান্তর করেন গুলশান থানার ওসি।পরে সংস্থা তা ট্রাইব্যুনালের চিফ প্রসিকিউটরকে দিলে তুরিনের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণ শুরু হয়।

প্রিন্ট করুন

বিভাগ: আইন-আদালত