এবার অরিন্দম শীলের প্রকৃত চেহারা ফাঁস করলেন স্ত্রী

বিনোদন ডেস্ক: টলিউড অভিনেতা এবং পরিচালক অরিন্দম শীলের ভালো চরিত্রের মুখোশটি এবার জনসমক্ষে খুলে ফেললেন তারই স্ত্রী তনুরুচি শীল।

অরিন্দমের প্রথম স্ত্রী তনুরুচি শীল অভিযোগ এনেছেন, তার সঙ্গে অরিন্দম শীলের আইনী বিচ্ছেদ না হওয়া সত্ত্বেও তিনি বাস করছেন শুক্লা দাসের সঙ্গে।

তনুরুচি সোশ্যাল মিডিয়ায় লিখেছেন, ‘আমি অরিন্দম শীলের স্ত্রী। কিন্তু উনি আমার সঙ্গে অন্যায় করেছেন। উনি থাকেন শুক্লা দাসের সঙ্গে। আলিপুর আদালতে বিবাহ বিচ্ছেদের মামলা এখনও স্থগিত অবস্থায় রয়েছে।”

৯৩ সালে রেজিস্ট্রি করে বিয়ে হয় অরিন্দম শীল এবং তনুরুচির। কিন্তু ২০০৩ সালে অরিন্দম ডিভোর্সের মামলা করেন। সেই মামলা গত বছর খারিজ হয়ে যায়।

তিনি আরো জানালেন, সকলে দেখুক অরিন্দমের আসল ছবি। দর্শকদের অতি প্রিয় অরিন্দমবাবুর বিরুদ্ধে তার স্ত্রীর সম্পত্তি দখলের অভিযোগও রয়েছে।

বলেন, “অরিন্দম আমাকে সম্পত্তি থেকেও বঞ্চিত করেছে। বেলেঘাটায় আমাদের যৌথ ভাবে কেনা ফ্ল্যাট ছিল। সেটা দখল করে রেখেছে। ও তখন বাম সরকারের ঘনিষ্ঠ ছিল। সেই জোরে আমাকে তাড়ায়। এখন তৃণমূল কংগ্রেসে গেছে সুবিধা পাবে বলে।”

তনুরুচির পোস্টে প্রত্যেকে তার সাহসিকতার জন্যে ধন্যবাদ দিয়েছেন। তার বন্ধুরা পাশে রয়েছেন সর্বক্ষণ। এবং এমন ছদ্মবেশী পুরুষদের মুখোশ এভাবেই খুলে দেওয়া উচিৎ বলে জানিয়েছেন তার বন্ধুরা।

এদিকে, কয়েকদিন আগেও বিতর্কে জড়িয়েছিলেন বাংলা চলচ্চিত্র জগতের পরিচালক অরিন্দম।

তার বিরুদ্ধে অশালীন ব্যবহারের অভিযোগ তুলেছিলেন কলকাতার জনপ্রিয় অভিনেত্রী রূপাঞ্জনা মিত্র। ‘মিতিনমাসি’, ‘ঈগলের চোখ’, ‘এবার শবর’ ছবির নির্মাতা তার ফাকা অফিসে ডেকে নাকি এই অভিনেত্রীর সঙ্গে অসভ্য আচরণ করে। অবশ্য রূপাঞ্জনার এই অভিযোগ মিথ্যে বলে দাবি করেন অরিন্দম।

প্রিন্ট করুন

বিভাগ: বিনোদন