কলেজশিক্ষক আলী হোসেন হত্যায় ২ কর্মচারীর ফাঁসি

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট: দুই বছর আগে সাবেক কলেজশিক্ষক আলী হোসেন মালিক হত্যার ঘটনায় করা মামলায় তার ২ কর্মচারীকে ফাঁসিতে ঝুলিয়ে মৃত্যুদণ্ড করার রায় দিয়েছে আদালত। একইসঙ্গে রায়ে অপর এক ধারায় আসামিদের ৫০ হাজার টাকা করে জরিমানাও করা হয়েছে।

বৃহস্পতিবার (২৯ নভেম্বর) ঢাকার প্রথম অতিরিক্ত মহানগর দায়রা জজ আদালতের বিচারক আল মামুন এ রায় দেন।

ফাঁসির দণ্ডপ্রাপ্ত দুই আসামি হলেন- সায়েদ ফকির ওরফে সাইফুল ও মো. সুজন। তারা রায় ঘোষণায় সময় আদালতে উপস্থিত ছিলেন। রায় শুনে আসামিরা কান্নায় ভেঙে পড়েন।

আদালতে রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী মো. শাহাবুদ্দিন মিয়া গণমাধ্যমকে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

তিনি জানান, একই মামলায় হত্যায় জড়িত থাকার অভিযোগ প্রমাণিত না হওয়ায় খালাস পেয়েছেন আলী হোসেনের গাড়িচালক মাসুদ মল্লিক।

উল্লেখ্য, অবসরে যাওয়ার আগে রাজধানীর সোহরাওয়ার্দী কলেজের ভাইস প্রিন্সিপাল ছিলেন আলী হোসেন মালিক। তার আগে ইডেন মহিলা কলেজসহ বিভিন্ন কলেজে তিনি অধ্যাপনা করেন। ২০১৬ সালের ১১ অক্টোবর বনানী ডিওএইচএসের এক বাসায় হাত-পা বেঁধে ছুরি মেরে তাকে হত্যা করা হয়।

এ ঘটনায় আলী হোসেনের ছেলে মো. সেয়াম মালিক বাদী হয়ে ভাষানটেক থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করলে তদন্তে নেমে সাইফুল ও সুজনকে ১ লাখ ২৭ হাজার ৮৩২ টাকাসহ গ্রেফতার করে র‌্যাব। এরপর আসামিরা আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দিও দেন।

বিডি সংবাদ টোয়েন্টিফোর ডটকম/

প্রিন্ট করুন

বিভাগ: আইন-আদালত