নির্বাচিত খবর

কোয়ারেনটাইন অমান্য করলে কঠোর হতে বাধ্য হবো: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

বিডি সংবাদ টোয়েন্টিফোর ডটকম: করোনা ভাইরাস আক্রান্ত দেশ থেকে যারা দেশে আসছে, তাদের ১৪ দিন হোম কোয়ারেনটাইনে থাকতেই হবে বলে জানিয়ে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল বলেন, ‘যারা থাকবেন না, যারা কোয়ারেনটাইন অমান্য করবেন তাদের ক্ষেত্রে প্রয়োজনে কঠোর আইন প্রয়োগ করতে বাধ্য হবো।’

বুধবার (১৮ মার্চ) রাজধানী মতিঝিলের এনআরবিসি ব্যাংকে মুজিব কর্নার উদ্বোধন অনুষ্ঠানে শেষে সাংবাদিকদের এ কথা জানান তিনি।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘বিদেশ থেকে আসার পর দয়া করে এই ১৪ দিন কোয়ারেনটাইনে থাকবেন। আপনারা নিজেকে বাঁচাবেন এবং এই দেশকে বাঁচাবেন। আপনারা একটুখানি কষ্ট করলে হয়তো আমরা এই ভাইরাস থেকে বাঁচতে পারবো। নির্দেশিত বিষয়গুলো না মানলে আইন আছে, সে অনুযায়ী ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে।’ ব্রেকিংনিউজ

তিনি বলেন, ‘স্বাস্থ্যমন্ত্রী আইন প্রয়োগের কথা আগেই বলেছেন। আমি আইন প্রয়োগের আগে আপনাদের (বিদেশ ফেরত) চাই- আপনারা সচেতন হোন। আমরা আইন প্রয়োগ করতে চাই না। তবে সচেতন না হলে আইনগত ব্যবস্থা নিতে বাধ্য হবো।’

তিনি আরও বলেন, ‘ইতালি ও স্পেন করোনা ভাইরাসকে সঠিক সময়ে আমলে না নিয়ে ভয়াবহ পরিস্থিতিতে পড়েছে। বাংলাদেশ এমন ভুল করতে চায় না।’ বিদেশফেরত সবাইকে হোম কোয়ারেনটাইনের নির্দেশ মানার আহ্বান জানান স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী।

এদিকে হোম কোয়ারেনটাইন না মানায় টাঙ্গাইল, শরীয়তপুর ও মানিকগঞ্জে বিদেশফেরত ছয় জনকে জরিমানা করা হয়েছে।

টাঙ্গাইলের সখীপুরে সিঙ্গাপুর ফেরত এক প্রবাসীকে ১০ হাজার টাকা জরিমানা করেছে ভ্রাম্যমাণ আদালত। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা জানান, গত ৭ই মার্চ সিঙ্গাপুর থেকে দেশে ফেরেন ওই ব্যক্তি। দেশে ফিরে তিনি বিভিন্নস্থানে ঘোরাফেরা করছিলেন। স্বাস্থ্য বিভাগের একটি টিম ওই বাড়িতে গিয়ে তাকে সতর্ক করার চেষ্টা করেও ব্যর্থ হয়। পরে, সকালে বাড়িতে গিয়ে তাকে জরিমানা ও একটি ঘরে একাই থাকার জন্য নির্দেশনা দেয়া হয়।

হোম কোয়ারেনটাইন না মানায় শরীয়তপুরে ইতালি প্রবাসী এক ব্যক্তিকে ৫০ হাজার জরিমানা করা হয়েছে। এছাড়া, গত তিনদিনে মানিকগঞ্জ সদর, ঘিওর ও সাটুরিয়ায় চার প্রবাসীকে ৪০ হাজার টাকা জরিমানা করেছে ভ্রাম্যমাণ আদালত।

প্রিন্ট করুন

বিভাগ: জাতীয়