ক্যান্সার ও হৃদরোগের ঝুঁকি কমাবে সাইক্লিং

লাইফস্টাইল অনলাইন ডেস্ক : সকাল থেকে রাত পর্যন্ত কত কিছুই না করা হলো। কিন্তু শরীর থেকে একবিন্দু ঘামও ঝরলো না। অর্থাৎ আমরা যারা নগর জীবনের আয়েশী মানুষ, আমরা যত কাজই করি না কেন তাতে কায়িক কোনও শ্রম হয় না। ফলে ঘাম ঝরার তো প্রশ্নই আসে না। কিন্তু এই আয়েশ যে ধীরে ধীরে একজন সুস্থ-সবল মানুষকে অসুস্থ করে তোলে, আক্রান্ত করে নানা জটিল রোগে তা একবারের জন্যও ভাবি না।

সম্প্রতি যুক্তরাজ্যে যানবাহনে চড়ে কাজে যাওয়া এবং স্বাস্থ্যের ওপর তার প্রভাব নিয়ে একটি গবেষণা করা হয়েছে। গবেষণার ফলাফলে দেখা গেছে সাইকেল চালিয়ে কাজে গেলে ক্যান্সার এবং হৃদরোগের ঝুঁকি অর্ধেক কমে যায়।

আড়াই লক্ষ অফিস যাত্রীর ওপর পাঁচ বছর ধরে এই গবেষণা করা হয়। এতে দেখা গেছে সাইকেলের ওপর নির্ভরশীল ব্যক্তিদের প্রাণঘাতী রোগের ঝুঁকি কম।
গবেষণার অংশগ্রহণকারী অফিস যাত্রীদের ২৪৩০ জন মারা গেছেন, ৩৭৪৮ জনের ক্যান্সার এবং ১১১০ জনের হৃদরোগ ধরা পড়েছে। তবে যেসব অফিস যাত্রী সাইকেল চালিয়ে অফিস যান ক্যান্সারের ঝুঁকি কমেছে ৪৫ শতাংশ এবং হৃদরোগের ঝুঁকি কমেছে ৪৬ শতাংশ। এসব ব্যক্তিরা সপ্তাহে গড়ে ৩০ মাইল সাইকেল চালিয়েছেন।

এর চেয়ে বেশি যারা সাইকেল চালিয়েছেন তাদের তত সুস্থ থাকার সম্ভাবনা বেড়েছে। ব্রিটিশ মেডিকেল জার্নালে গবেষণার এই প্রতিবেদনটি প্রকাশিত হয়েছে। অপরদিকে যারা হেঁটে কাজে যান তাদের ক্ষেত্রেও হৃদরোগের ঝুঁকি কম। এক্ষেত্রে সপ্তাহে কমপক্ষে ৬ মাইল হাঁটতে হবে।
এ ব্যাপারে গ্লাসগো বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষক ড. জেসন গিল মনে করেন, কাজে যাওয়ার উপায়ের সাথে স্বাস্থ্য ঝুঁকির সম্পর্ক রয়েছে। বিশেষ করে সাইকেল চালিয়ে কাজে যাওয়ার উপকার অনস্বীকার্য।

অতএব মেদ এবং প্রদাহ কমাতে চাইলে, শরীরকে আরও রোগমুক্ত ও চাঙ্গা রাখতে চাইলে একটুখানি ঘাম ঝরানো জরুরি। প্রতিদিনের সাইক্লিং আপনাকে সেই পথ দেখাচ্ছে। আপনি চাইলে ছিমছাম একখানি সাইকেই নিয়ে নেমে পড়তে পারেন পিচঢালা পথে।

ব্রেকিংনিউজ/

প্রিন্ট করুন

বিভাগ: লাইফস্টাইল