নির্বাচিত খবর

গর্ভাবস্থায় এড়িয়ে চলুন তেঁতুল

স্বাস্থ্য ডেস্ক: গর্ভবতী নারীদের মুখে রুচি ফেরাতে অনেকেই তেঁতুল খেতে পছন্দ করেন। তেঁতুলের তৈরি আচার বা টক জাতীয় রেসিপির প্রতি ঝোঁক বাড়ে। বিশেষত গর্ভধারণের পর মর্নিং সিকনেস ও বমি বমি ভাব কাটাতে অনেকেই বেশি বেশি তেঁতুল খান।

তবে বিশেষজ্ঞরা মনে করেন, গর্ভাবস্থায় বেশি তেঁতুল খাওয়া শরীরের জন্য ক্ষতিকর। প্রথম ট্রাইমেস্টারে তেঁতুলের ধারেকাছেও যাওয়া উচিত নয়। এরপরেও খাওয়া ঝুঁকিপূর্ণ।

কিন্তু কেন এড়িয়ে যেতে হবে তেঁতুল?

এক সমীক্ষায় দেখা যায়, গর্ভবতী মায়ের শরীরে প্রোজেস্টেরন হরমোনের উৎপাদন অনেকাংশে কমিয়ে দেয় তেঁতুল। কারণ তেঁতুলে থাকে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন সি। আর প্রোজেস্টেরন হরমোনের উৎপাদন কমে গেলে সময়ের আগে শিশুর জন্ম অর্থাৎ প্রিটার্ম বার্থের ঝুঁকি বেড়ে যায়। হতে পারে গর্ভপাতও। এছাড়াও অতিরিক্ত ভিটামিন সি ভ্রুণের কোষ নষ্ট করে দিতে পারে।

শুধু তাই নয়, অ্যালার্জি বা অতিসংবেদনশীলতা তেঁতুলের একটি কমন পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া। অনেকের মধ্যেই এ ফলটির উপাদানের প্রতি সংবেদনশীল হতে দেখা যায়।

তাকে করে তাদের মধ্যে র‌্যাশ, চুলকানি, ইনফ্লামেশন, জ্ঞান হারিয়ে ফেলা, বমি কিংবা শ্বাসকষ্টের মতো মারাত্মক এসব লক্ষণ দেখা দেয়।

প্রিন্ট করুন

বিভাগ: স্বাস্থ্য