গৃহবধূকে ধর্ষণের পর হত্যা মামলায় ৭ আসামির মৃত্যুদণ্ড

জয়পুরহাট প্রতিনিধি: জয়পুরহাটের আক্কেলপুর উপজেলায় গৃহবধূ আরতী রানীকে ধর্ষণপূর্বক হত্যার মামলায় ৭ জনকে মৃত্যুদণ্ড দিয়েছেন আদালত। এর মধ্যে দুজনকে ৫ লাখ ও ৫ জনকে ১ লাখ টাকা করে অর্থদণ্ড করা হয়েছে।

মঙ্গলবার (২২ অক্টোবর) জয়পুরহাটের নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের বিচারক ড. এ বি এম মাহমুদুল হক এ রায় ঘোষণা করেন।

দণ্ডপ্রাপ্তরা হলেন- আক্কেলপুর উপজেলার মারমা গ্রামের সোহেল তালুকদার, দেওড়া সোনারপাড়া গ্রামের আফজাল হোসেন, মজিবর রহমান, দেওড়া গুচ্ছ গ্রামের রাহিন, আজিজার রহমান, সাখিদার পাড়ার ফেরদৌস আলী ও জগতি গ্রামের রুহুল আমীন।

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালেন পাবলিক প্রসিকিউটর ফিরোজ চৌধুরী।

আদালত সূত্রে জানা যায়, ২০১৬ সালের ৮ অক্টোবর রাতে দেওড়া আশ্রয়ন কেন্দ্রের বাসিন্দা উজ্জ্বল মহন্তের স্ত্রী আরতী রানীকে বাড়ি থেকে তুলে নিয়ে গণধর্ষণ করে পালিয়ে যায় আসামিরা। পরে হাসপাতালে নেয়ার পর আরতীর মৃত্যু হয়।

এ ঘটনার দুদিন পর ১০ অক্টোবর আরতীর স্বামী উজ্জ্বল বাদী হয়ে ৭ জনকে আসামি করে আক্কেলপুর থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে একটি মামলা করলে তদন্ত শেষে আদালতে প্রতিবেদন দেয় পুলিশ। এর পর শুরু হয় বিচারকাজ। দীর্ঘ সাক্ষ্যগ্রহণ শেষে আদালত আজ আলোচিত এ মামলার রায় ঘোষণা করলেন।

প্রিন্ট করুন

বিভাগ: রাজশাহী,সারাদেশ