নির্বাচিত খবর

ঘর থেকে বের হলেই গুলির নির্দেশ

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : করোনা ভাইরাসের তাণ্ডবে দেশে দেশে চলছে লকডাউন। গৃহবন্দি বিশ্বের কোটি কোটি মানুষ। প্রতিটি দেশের সরকার নিজেদের সুরক্ষার জন্য জনগণকে ঘরে থাকার আহ্বান জানাচ্ছে। তারপরও অনেকেই নির্দেশনা অমান্য করে রাস্তায় বের হচ্ছে। কারণে-অকাণে বের হচ্ছে। তেমন বিশেষ প্রয়োজন ছাড়াও ঘুরাফেরা করছে।

এবার সেইসব অসচেতন ও নির্দেশনা অমান্যকারী ব্যক্তিদের বিষয়ে সর্বোচ্চ কঠোর হলো দেশটির সরকার। লকডাউন ভেঙে কেউ রাস্তায় বের হলেই গুলির নির্দেশ দিয়েছেন ফিলিপাইনের প্রেসিডেন্ট রদ্রিগো দুতার্তে।

স্থানীয় সময় বুধবার শেষ রাতে জাতির উদ্দেশ্যে দেয়া এক টেলিভিশন ভাষণে ফিলিপাইনের সবচেয়ে বড় দ্বীপ লুজানে করোনা ভাইরাসের বিস্তার প্রতিরোধে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যদের এমন কড়া নির্দেশ দেন রদ্রিগো।

এদিকে গতকাল বুধবার ফিলিপাইনের স্বাস্থ্য বিভাগ জানিয়েছে, দেশটিতে এখনও পর্যন্ত ২৩১১ জন করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত। যাদের বেশিরভাগেই লুজান দ্বীপে। আক্রান্তদের মধ্যে ৯৬ জনের মৃত্যু হয়েছে।

এরইমধ্যে দ্বীপটিতে মাসব্যাপী লকডাউন ঘোষণা করেছেন দুতার্তে। কিন্তু সেখানকার অনেকেই সরকারি নির্দেশনা অমান্য করে রাস্তায় বের হচ্ছেন। সনসমাগম করছেন। সামাজিক দূরত্বও মানছেন না।

এমতাবস্থায় করোনার ভয়াবহ পরিস্থিতি থেকে গোটা দেশের জনগণকে সুরক্ষিত রাখতে লুজানে লকডাউন অমান্যকারীকে দেখা মাত্রই গুলি করার নির্দেশ দিয়েছেন পুলিশ ও সামরিক বাহিনীকে।

দুতার্তে তার ভাষণে বলেছেন, ‘যারাই নির্দেশ ভেঙে রাস্তায় বের হবেন তাদেরকেই গুলি করা হয় যেন। এই সতর্কবার্তা সবার জন্যই। এই সংকটকালীন সময়ে সবাইকে লকডাউন সঠিকভাবে মেনে চলতে হবে। সরকারের সব দিকনির্দেশনা পালন করতে হবে। নয়তো আমরা করোনার প্রভাব থেকে কেউই রেহাই পাবো না।’

দুতার্তে হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করে বলেন, ‘চিকিৎসক ও স্বাস্থ্যকর্মীদের কোনও ধরনের ক্ষতি করার মতো মারাত্মক অপরাধ কেউ করবেন না। আমি পুলিশ ও সামরিক বাহিনীকে নির্দেশ দিচ্ছি- কেউ ঘর থেকে বের হয়ে সমস্যা তৈরি করলে সঙ্গে সঙ্গেই তাকে গুলি করবেন।’

প্রিন্ট করুন

বিভাগ: আন্তর্জাতিক