ছিনতাইয়ের কবলে পড়া ময়ূরপঙ্খী উড়বে আজ

জাতীয় ডেস্ক: ছিনতাইচেষ্টার শিকার বাংলাদেশ বিমানের উড়োজাহাজ ময়ূরপঙ্খীর মেরামতের কাজ শেষ। এটি এখন উড্ডয়নের জন্য প্রস্তুত। বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষ (বেবিচক) ও উড়োজাহাজটির নির্মাতা প্রতিষ্ঠান বোয়িং কোম্পানির অনুমতি পাওয়া গেলে বৃহস্পতিবার (৭ মার্চ) থেকে উড়োজাহাজটি আকাশে উড়বে।

বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইনসের মহাব্যবস্থাপক (জনসংযোগ) শাকিল মেরাজ ব্রেকিংনিউজকে বলেন, ছিনতাইয়ের চেষ্টার ঘটনার পর উড়োজাহাজটির কিছু ছোটখাটো ক্ষতি হয়েছিল। এখন মেরামত কাজ সম্পূর্ণভাবে শেষ হয়েছে।

তিনি আরও বলেন, বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষের অনুমতি পাওয়া গেলে আমরা ৭ মার্চের মধ্যেই উড়োজাহাজটির অপারেশন কার্যক্রম চালু করতে পারব।

গত ২৪ ফেব্রুয়ারি ঢাকা থেকে চট্টগ্রাম হয়ে দুবাইগামী বাংলাদেশ বিমানের ফ্লাইট বোয়িং ৭৩৭-৮০০ মডেলের ময়ূরপঙ্খী ছিনতাইয়ের চেষ্টা করে পলাশ আহমেদ নামের এক দুষ্কৃতকারী। তবে পাইলট ও ক্রুদের বিচক্ষণতায় চট্টগ্রাম শাহ আমানত বিমানবন্দরে বিমানটি নিরাপদে অবতরণ করে। এরপর আইনশৃঙ্খলা বাহিনী ও সেনাবাহিনীর দ্রুত পদক্ষেপে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আসে। এ সময় কমান্ডো অভিযানে ছিনতাইচেষ্টাকারী পলাশ আহমেদ মারা যায়।

ঘটনার পর ওই (বুধবার) রাতে বিমানটি চট্টগ্রামের শাহআমানত বিমানবন্দর থেকে থেকে ঢাকার হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে পৌঁছায়। তবে, ঘটনায় বিমানটি ক্ষতিগ্রস্ত হলে মেরামতের কাজের জন্য পাঠানো হয়।

এদিকে, ময়ূরপঙ্খী ছিনতাইচেষ্টার ঘটনার সময় দায়িত্বরত বেবিচকের দুই নিরাপত্তা কর্মকর্তা ও তিন আনসার সদস্যকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে। এছাড়া বিমানবাহিনীর এক সার্জেন্টকে প্রত্যাহার করা হয়েছে।

বরখাস্তরা হলেন— সিভিল এভিয়েশনের সিকিউরিটি সুপারভাইজার লেহাজ উদ্দিন ভূঁইয়া, নিরাপত্তারক্ষী ইউনুস হাওলাদার, আনসার সদস্য আলিম হোসেন, মাহফুজুর রহমান ও সাদ্দাম হোসেন। অন্যদিকে, বিমান বাহিনীর সার্জেন্ট সাজেদুল ইসলামকে প্রত্যাহার করা হয়েছে। সূত্র: ব্রেকিংনিউজ/

প্রিন্ট করুন

বিভাগ: জাতীয়