ট্যানারির দূষণ নিয়ে বৈঠকে বসছে টাস্কফোর্স

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট: পরিবেশ সুরক্ষাতেই হাজারীবাগ থেকে ট্যানারী স্থানান্তর করা হয় সাভারে। হাজারীবাগে বুড়িগঙ্গা দূষিত হওয়ার পর এবার সাভারেও দূষিত হচ্ছে ধলেশ্বরী। সাভার ট্যানারি শিল্প নগরীতে কেন্দ্রীয় বর্জ্য শোধনাগার (সিইটিপি) সঠিকভাবে স্থাপিত না হওয়ায় এর বর্জ্য ধলেশ্বরী নদীকে দূষিত করছে। তাই এ নদীর দূষণ রোধে শিল্প মন্ত্রণালয়ের সঙ্গে ‘নদীর দূষণ রোধ নাব্যতা বৃদ্ধি সংক্রান্ত টাস্কফোর্স’ শিগগিরই বৈঠকে বসবেন বলে জানিয়েছেন নৌমন্ত্রী ও টাস্কফোর্সের সভাপতি শাহজাহান খান।

বৃহস্পতিবার (২০ সেপ্টেম্বর) সচিবালয়ে টাস্কফোর্সের ৩৮তম সভা শেষে তিনি এ কথা বলেন। শাহজাহান খান বলেন, ‘সাভারে যে ট্যানারি স্থানান্তরিত হয়েছে। সেটি যেভাবে স্থাপিত হওয়ার কথা সেভাবে হয়নি। বিশেষ করে সিইপিটি সঠিকভাবে স্থাপিত হয়নি। এ ছাড়া শিল্পকারখানার বর্জ্য যথাযথভাবে ব্যবস্থা করার কথা থাকলেও সেভাবে করা হয়নি বলে দেখা গেছে।’

নৌমন্ত্রী আরও বলেন, ‘এ বিষয়ে খুব শিগগিরই শিল্প মন্ত্রণালয়ের সঙ্গে বসা হবে। আলোচনা করে একটা সুষ্ঠু ব্যবস্থা গ্রহণ করতে চাই। কারণ সেখানে অনেকগুলো ট্যানারি স্থাপিত হবে। সে কারণে দ্বিতীয় সিইপিটির কাজ শুরু না হলে ধলেশ্বরী নদী দূষিত হবে। সে জন্যই আমরা এ ব্যাপারে কার্যক্রম শুরু করেছি।’

জানা যায়, সাভারের ট্যানারি শিল্প নগরে কেন্দ্রীয় বর্জ্য শোধনাগার (সিইটিপি) পুরোপুরি হয়নি। এতে চামড়া শিল্প বর্জ্য তীব্রভাবে দূষণ করছে পার্শ্ববর্তী ধলেশ্বরীকে। বিভিন্ন পরিবেশবাদী সংগঠন ইতোমধ্যে ধলেশ্বরী দূষণের জন্য চামড়া শিল্পকে দায়ী করেছে। এলাকাবাসী বিক্ষোভ মিছিল, সংবাদ সম্মেলন ও প্রতিবাদ কর্মসূচি দিয়ে দূষণের প্রতিবাদ জানিয়ে আসছে।

বিডি সংবাদ টোয়েন্টিফোর ডটকম/

প্রিন্ট করুন

বিভাগ: জাতীয়