দেশ কি স্বাধীন হয়েছে? প্রশ্ন জাফরুল্লাহ’র

বিডি সংবাদ টোয়েন্টিফোর ডটকম: গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের প্রতিষ্ঠাতা ও ভাসানী অনুসারী পরিষদের চেয়ারম্যান ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী বলেছেন, ‘আজ সুবেহে সাদিকের পর মাওলানা ভাসানীর সাথে আমার কথা হয়। তিনি আমাকে বললেন, দেশ কী স্বাধীন হয়েছে? আমি শেখ মুজিবকে কিভাবে মুক্ত করেছিলাম জানো? ক্যান্টনমেন্ট ভেঙে মুজিবকে বের করে এনেছিলাম। বাংলাদেশকে মুক্ত করেছিলাম। আজ এই বাংলাদেশে প্রায় ২ কোটি মানুষ পুষ্টিকর খাবার পাচ্ছে না। পাটকল শ্রমিকদের অনশন চলছে, দেশের আজ এই অবস্থা। তারপর আমার ঘুম ভেঙে যায়।’

তিনি বলেন, ‘আজ এই দেশে মাওলানা ভাসানীর জন্মদিনও ভালোভাবে পালন করা হয় না। তাহলে বুঝেন দেশ কি ভাবে চলছে।’

বৃহষ্পতিবার (১২ ডিসেম্বর) জাতীয় প্রেসক্লাবে জহুর হোসেন চৌধুরী হলে ভাসানী অনুসারী পরিষদের উদ্যোগে মজলুম জননেতা মওলানা ভাসানীর ১৩৯তম জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে আয়োজিত আলোচনা সভায় তিনি এসব কথা বলেন।ব্রেকিংনিউজ

আলোচনা সভায় জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান মোস্তফা জামাল হায়দার বলেন, ‘মাওলানা ভাসানী বিভিন্নমুখী ভূমিকা রেখেছেন। মেহনতী মানুষের জন্য আন্তর্জাতিকভাবে, গণমানুষের মুক্তি সকল ক্ষেত্রে তার ব্যাপক ভূমিকা রয়েছে। দেশে আজ স্বাধীন ও সার্বভৌমত্ব বিলীন হয়ে গেছে। এই সময়ে তাঁর মতো নেতার খুব দরকার ছিল।’

গণসংহতি আন্দোলনের সমন্বয়কারী জোনায়েদ সাকি বলেন, ‘বর্তমানে দেশে এমন একটা সরকারকে দেখতে পাচ্ছি যা ভারতের তাবেদার সরকার। ভারত বাংলাদেশের বঙ্গোপসাগরে রাডার বসিয়েছে। যার ফলে বাংলাদেশ আজ হুমকির মুখে। এই সরকার দেশের স্বার্থ রক্ষার চাইতে তার গদি রক্ষার জন্য প্রাধান্য দিচ্ছে। মাওলানা ভাসানীর আন্দোলনের ফল এখনো অনেকে ভোগ করছেন, ব্যবহার করছেন।

ভাসানী অনুসারী পরিষদ আয়োজিত আলোচনা সভায় আরও উপস্থিত ছিলেন ওয়ার্কার্স পার্টির সাধারণ সম্পাদক সাইফুল হক, বিকল্পধারার প্রেসিডেন্ট অধ্যাপক নুরুল আমিন বেপারী, খালেকুজ্জামান ভূঁইয়াসহ অন্যান্য নেতৃবৃন্দ।

প্রিন্ট করুন

বিভাগ: রাজনীতি