নির্বাচিত খবর

নওগাঁয় পরিত্যাক্ত শিশুকে উদ্ধার করলো মানবিক পুলিশ

সাপাহার(নওগাঁ) প্রতিনিধি : নওগাঁয় তিন দিনের পরিত্যাক্ত শিশুকে উদ্ধার করে মানবতার দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছেন বদলগাছী পাহাড়পুর ফাঁড়ি ইনচার্জ মনিরুল ইসলাম। ঘটনাটি ঘটেছে গতকাল শুক্রবারে। 

সম্প্রতি কয়েকদিন আগে সাপাহার থানা হতে বদলী হয়ে পাহাড়পুর ফাঁড়িতে ইনচার্জ হিসেবে যোগদান করেন মনিরুল ইসলাম। মনিরুল ইসলামের ব্যক্তিগত ফেসবুক আইডি হতে জানা যায়, শুক্রবার রাত ৮টার দিকে নিজের কর্মস্থলে বসে অফিসিয়াল কাজে ব্যাস্ত থাকাকালনি সময়ে একটি ফোন কল আসে। অপর প্রান্ত থেকে একজন বলেন, “স্যার আপনার ফাঁড়ির পূর্বদিকে চাপাডাল গ্রামের পাকৈড়তলির মোড়ে, পাহাড়পুর টু জামালগঞ্জ রাস্তার উত্তর পাশে পাইকড় গাছের গোড়াতে একটি শপিং ব্যাগের ভিতর ৩ অথবা ৪ দিন বয়সের একটি মেয়ে বাচ্চা রেখে কে বা কাহারা ফেলে চলে গেছে”। এসময় প্রচন্ড ঝড় ও বৃষ্টি হচ্ছিল। 

খবর পেয়ে ঝড় বৃষ্টিকে উপক্ষো করে সঙ্গীয় ফোর্স সহ পুলিশ ভ্যান নিয়ে দ্রত ঘটনা স্থলে পৌঁছে ফুটফুটে তিন দিন বয়সের একটি বাচ্চা মেয়েকে উদ্ধার করেন এই পুলিশ কর্মকর্তা। তিনি বাচ্চাটিকে উদ্ধার করার পর নওগাঁ জেলা পুলিশ সুপার প্রকৌশলী আবদুল মান্নান মিয়া বিপিএম ও মহাদেবপুর সার্কেল এবং ওসি বদলগাছি থানা সহ পূর্বের কর্মস্থল সাপাহার থানার ওসি আব্দুল হাই কে বিয়টি অবগত করেন। পুলিশ সুপার নির্দেশনা মোতাবেক বাচ্চাটিকে পুলিশ ভ্যানে দ্রæত বদলগাছি উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসার জন্য নিয়ে যান তিনি । 

হাসপাতালের জরুরী বিভাগের ডাক্তার প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে বাচ্চাটি সুস্থ আছে মর্মে ছাড়পত্র প্রদান করেন স্বাস্থ্য বিভাগ। পরে ফাঁড়ির পাশের বাড়ির জৈনক মনিরুজ্জামান মুন্নার স্ত্রীকে সাময়িক দেখাশুনা করার জন্য দুধ মা হিসেবে তার জিম্মায় রাখেন শিশুটিকে। আল্লাহর অশেষ কৃপায় ও পুলিশের তত্ববধানে বাচ্চাটি এখন সুস্থ আছে বলে জানা গেছে। 

এ বিষয়ে পুলিশ সুপারের পক্ষ থেকে সকল প্রকার সহায়তা অব্যহত থাকবে মর্মে পুলিশ অফিসার মনিরুল কে জানানো হয়েছে। পুলিশের এই মানবিক কর্ম আবারো একটি মানবতার দৃষ্টান্ত স্থাপন করলো বলে জানান এলাকার অভিজ্ঞ মহল।

প্রিন্ট করুন

বিভাগ: রাজশাহী,সারাদেশ