নির্বাচিত খবর

নাটোরের নলডাঙ্গার হাট-বাজার ফাঁকা পুলিশে কঠোর তৎপরতায়

এম এম আরিফুল ইসলাম, নাটোর : নলডাঙ্গার হাট-বাজার ফাঁকা পুলিশের তৎপরতার কারণে ফাঁকা হয়ে গেছে । এজন্য কাজ করছে পুলিশের কুইক রেন্সপন্স টিম,ডিএসবি পুলিশের চৌকস সদস্যরা। গত কয়েক দিনের তুলনায় ছিল নাটোর নলডাঙ্গা উপজেলার রাস্তা-ঘাট জনমানব শূণ্যে। প্রয়োজনীয় গাড়ি ছাড়া অপ্রয়োজনীয় চলাচল করা গাড়ীর বিরুদ্ধে দেওয়া হচ্ছে মামলা।
জানা যায়, নাটোর নলডাঙ্গা ওসি মোঃ হুমায়ুন কবির নেতৃত্বে জনসমাগম স্থানগুলোতে অভিয়ান পরিচালনা করা হচ্ছে। যেখানেই জনসমাগম হচ্ছে, সেখানেই ছুটে যাচ্ছে পুলিশ  সদস্যরা। এছাড়া ব্রহ্মপুর ইউনিয়নের এস আই মোশাররফ হোসেন,এ এস আই আজগর আলী, মাধনগর ইউনিয়ন এস আই মোঃ মতিউর রহমান,এ এস আই  এনামুল হক,খাজুর ইউনিয়নের এস আই  মজিবর রহমান ,এএসআই হোসেন আলী  ,পিপরুল ইউনিয়নের এস আই আবু তাহের সরদার, এএসআই শরীফুল ইসলাম,  বিপ্রবেলঘরিয়া ইউনিয়নে এস আই আক্কাস আলী ও এ এস আই আক্তার  হোসেন নেতৃত্বে সাধারণ মানুষদের হোম কোয়ারেন্টাইন নিশ্চিত করছে তারা।
রবিবার দুপুরে নাটোর নলডাঙ্গায় উপজেলা বিভিন্ন এলাকা পরিদর্শন শেষে নলডাঙ্গা থানার ওসি মোঃ হুমায়ুন কবির বলেন, আমরা সাধারণ মানুষদের ঘরে রাখার চেস্টা করছি। প্রতিটি মানুষ যাতে ঘরে থেকে নিজে এবং অন্যকে নিরাপদ রাখে। এজন্য গত তিন দিন ধরে পুলিশ সদস্যরা কঠোর পরিশ্রম করে যাচ্ছে। আমরা সামাজিক দূরত্বের পাশাপাশি হোম কোয়ারেন্টাইন নিশ্চিত করছি। ঔষধের দোকান এবং নিত্য প্রয়োজনীয় পণ্যে ছাড়া কোন দোকান খোলা থাকছে না।
ওসি আরও বলেন, আমরা বিভিন্ন ভাবে করোনা ভাইরাসে সংক্রমিত হচ্ছে মানুষরা, এমন খবর পাওয়ার পর পরই কুইক রেন্সপন্স টিম স্বাস্থ্য বিভাগের সাথে কাজ করে যাচ্ছে। সরকারী নির্দেশনা অনুযায়ী আগামী ১১ এপ্রিল পর্যন্ত সাধারণ মানুষদের ঘরে রাখাই হবে আমাদের বড় চ্যালেঞ্জ। আমরা সেই চ্যালেঞ্জকে গ্রহন করেছি।
প্রিন্ট করুন

বিভাগ: রাজশাহী,সারাদেশ