নির্বাচিত খবর

১৯শে সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ইং, ৪ঠা আশ্বিন, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

শিরোনাম

  “শুধু প্রশিক্ষণ গ্রহণ করলেই হবে না, প্রশিক্ষণ লব্দ জ্ঞানকে কাজে লাগাতে হবে”, ভিডিপি পুরুষ সদস্যদের উদ্দেশ্যে জেলা প্রশাসক, কুড়িগ্রাম       ঠাকুরগাঁওয়ে নবাগত পুলিশ সুপারের সাথে সাংবাদিকদের সাথে মতবিনিময় সভা       পাবনায় সরকারের উন্নয়ন প্রচারে কাজ করছে ‘উন্নয়ন সাফল্য প্রচার মঞ্চে’র এক ঝাঁক তরুণ       কুড়িগ্রামে যুবক-যুবতির মরদেহ উদ্ধার       ডোমারে বিদ্যুৎ অফিসের গাড়ী চালকের গলাকাটা লাশ উদ্ধার, আটক ৭       বিদ্যুৎ সমস্যা সমাধানের জন্য রাণীনগরে তৈরি হচ্ছে সাব-ষ্টেশন       রাণীনগরে গ্যাস ট্যাবলেট খেয়ে বৃদ্ধার আত্মহত্যা       বাগেরহাটে মেধাবী ছাত্রীদের মাঝে বাই-সাইকেল বিতরণ       তারেকের কথায় অনিতা-সুমন রাজীবের সুরে অনিতা-সুমন আসছে অনিতা-সুমনের ‘বন্ধু হতে চাই’       পার্বতীপুরে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে ভারত-বাংলাদেশ ফ্রেন্ডশিপ পাইপলাইন নির্মান প্রকল্প উদ্বোধন    

পারভেজ মুশাররফের পরিচয়পত্র-পাসপোর্ট বাতিলের নির্দেশ

আন্তর্জাতিক অনলাইন ডেস্ক : পাকিস্তানের সাবেক সামরিক শাসক জেনারেল পারভেজ মুশাররফের জাতীয় পরিচয়পত্র ও পাসপোর্ট বাতিলের নির্দেশ দিয়েছে দেশটির স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়।

দেশটির শীর্ষস্থানীয় দৈনিক ডন জানায়, একটি বিশেষ আদালতের রায় অনুযায়ী স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় এ নির্দেশ দিয়েছে। এ নির্দেশের জের ধরে জেনারেল মুশাররফের সব ব্যাংক একাউন্ট জব্দ করা হবে।

পাকিস্তানের একটি বিশেষ আদালতে মুশাররফের বিরুদ্ধে আনা রাষ্ট্রদ্রোহের মামলার শুনানিতে হাজিরা দিতে ব্যর্থ হলে গত ৮ মার্চ তার পরিচয়পত্র ও পাসপোর্ট বাতিলের নির্দেশ দিয়েছিল ওই আদালত। তবে, ওই নির্দেশ বাস্তবায়নের আগে আদালতের আগের নির্দেশ পালন করার জন্য সাবেক সেনাপ্রধানকে সুনির্দিষ্ট সময় বেধে দেয়া হয়েছিল। কিন্তু তিনি তা পালনে ব্যর্থ হওয়ার পর স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় এ নির্দেশ দিল।

২০০৭ সালের নভেম্বরে পাকিস্তানে জরুরি অবস্থা ঘোষণা করার কারণে পারভেজ মুশাররফের বিরুদ্ধে রাষ্ট্রদ্রোহিতার মামলা চলছে।

১৯৯৯ সালে এক রক্তপাতহীন সামরিক অভ্যুত্থানের মাধ্যমে তৎকালীন নির্বাচিত প্রধানমন্ত্রী নওয়াজ শরিফকে ক্ষমতাচ্যুত করেছিলেন জেনারেল মুশাররফ। পরবর্তীতে গণআন্দোলনের মুখে ২০০৮ সালের আগস্ট মাসে নির্বাচিত সরকারের কাছে ক্ষমতা হস্তান্তর করে স্বেচ্ছা নির্বাসনে চলে যান তিনি।

২০১৩ সালের মার্চ মাসে স্বেচ্ছা-নির্বাসিত জীবনের অবসান ঘটিয়ে পাকিস্তানে ফেরেন মুশাররফ। ওই মাসেই আদালত তার বিদেশ ভ্রমণের ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করে। অবশ্য ২০১৬ সালের মার্চ মাসে আদালতের অনুমতি নিয়েই তিনি চিকিৎসার উদ্দেশ্যে পাকিস্তান ত্যাগ করে দুবাই চলে যান। তারপর থেকে আর দেশে ফেরেননি পাকিস্তানের সাবেক এই সামরিক শাসক।

ব্রেকিংনিউজ/

প্রিন্ট করুন

বিভাগ: আন্তর্জাতিক