পুলিশ আসার আগেই ক্যাসিনোগুলো মানবশূন্য!

বিডি সংবাদ টোয়েন্টিফোর ডটকম: যুবলীগের নেতৃত্বাধীন কয়েকটি ক্যাসিনো অভিযান চালালেও কাউকে গ্রেফতার করতে পারেনি আইনশৃঙ্খলা বাহিনী। মতিথিল থানার ২০০ থেকে ১০০ গজের মধ্যে অবস্থিত এই ক্লাবগুলোতে অঅভিযানের আগেই পালিয়েছে কর্তৃপক্ষের লোকজন।

রাজধানীর মতিঝিলে চারটি ক্লাবে অভিযান শেষে মতিঝিল জোনের উপ-পুলিশ কমিশনার (ডিসি) আনোয়ার হোসেন বলেন, ‘গোয়েন্দা তথ্য পাওয়ার পর আমরা আভিযান শুরু করেছি। এর আগে ইন্টেলিজেন্স বা অন্য কোনো গোয়েন্দা সংস্থা থেকে ক্যাসিনো চালানোর ব্যাপারে তথ্য পাইনি। আজ ইন্টেলিজেন্স যখনই জানিয়েছে তখনই আমরা অভিযানে নেমেছি।’

রবিবার (২২ সেপ্টেম্বর) বিকেল ৩টার দিকে মতিঝিলের মহামেডান ক্লাব, ভিক্টোরিয়া ক্লাব, দিলকুশা ক্লাব ও আরামবাগ ক্লাবে ক্যাসিনোবিরোধ অভিযান চালানো হয়।

অভিযান শেষে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে আনোয়ার হোসেন জানান, ‘এই চারটি ক্লাবে অভিযানের সময় আমরা নগদ টাকা, ডলার এবং ক্যাসিনোসহ জুয়ার যাবতীয় সরঞ্জাম জব্দ করেছি। এখন আমরা এ ব্যাপারে তদন্ত করবো, কারা এর সঙ্গে জড়িত, কারা এর পৃষ্ঠপোষকাতা করে। তাদের সবাইকে আইনের আওতায় নিয়ে আসবো। জড়িত যেই হোক না কেনো কাউকে আমরা ছাড় দেবো না।’

আগে থেকে সবাই পালিয়ে যাওয়ায় অভিযানে কাউকে আটক করা যায়নি উল্লেখ করে তিনি বলেন, ‘যেহেতু এইসব ক্লাবের একটি অংশ জুয়া খেলার জন্য তৈরি করা হয়েছিল তাই ক্লাব চারটি সিলগালা করা হয়েছে।’

মতিঝিল থানার পাশে চারটি জুয়ার ক্যাসিনো চললেও পুশিল এতদিন জানতো না কেনো সাংবাদিকরা প্রশ্ন করলে আনোয়ার হোসেন বলেন, ‘আগে থেকে এ ব্যাপারে আমাদের কাছে কোনো গোয়েন্দা তথ্য ছিল না, আজ গোয়েন্দা তথ্য পাওয়ার পরই আমরা অভিযানে নেমেছি।’

প্রিন্ট করুন

বিভাগ: রাজধানী