পেটের সমস্যায় যা খাওয়া উচিৎ

স্বাস্থ্য অনলাইন ডেস্ক : চলছে মধুমাস গ্রীষ্মকাল। সেই সাথে চলছে পবিত্র রমজান। গরম আর রমজানে ভাজাপোড়া খাওয়া, দু’য়ে মিলে অনেকেরই পেট খারাপ বা ডায়রিয়া হওয়া এখন নিয়মিত ব্যাপার। দিনে তিন বার পাতলা পায়খানা, বমি হলেই বুঝে নিতে হবে ডায়রিয়ার লক্ষণ।

আর এসময় দেরি না করে চিকিৎসকের কাছে যাওয়া উচিত। তবে চিকিৎসার পাশাপাশি কিছু প্রাথমিক পদক্ষেপ হতে পারে ডায়রিয়া থেকে রক্ষা পাবার সহজ সমাধান।

পেট খারাপ হলে, অনেকেই অবহেলা করেন বা খাওয়া কমিয়ে দেন। এতে শরীরে তৈরি হয় প্রয়োজনীয় পুষ্টিগুণের ঘাটতি। আর এর ফলেই খুব সামান্য সমস্যাই হয়ে ওঠে বড় ক্ষতির কারণ। কাঁটা দিয়ে কাঁটা তোলার মতই, পেট খারাপে ঘরোয়া চিকিৎসা সম্ভব। আর এক্ষেত্রে সবচেয়ে উপকারী হল কিছু সহজলভ্য ফল ও খাবার।

১) কলা: 

কলায় আছে প্রচুর পরিমাণে পটাশিয়াম যা রোগ নিরাময়ে খুব উপকারী। একই সঙ্গে খাবারের বিষক্রিয়া কমাতে সাহায্য করে এই ফল। স্বাভাবিকভাবেই খাওয়া যেতে পারে কলা, আবার ‘বানানা শেইক’ও খাওয়া যেতে পারে।

২) আপেল:

বুকজ্বালা, অ্যাসিডিটি বা গ্যাস কমাতে কাজ করে আপেল। এই ফলের এনজাইম ডায়রিয়া ও পেট ব্যথার জন্য দায়ী ক্ষতিকর ব্যাকটেরিয়া সৃষ্টি দমিয়ে রাখতে সক্ষম।

৩) আদা:

খাবারের স্বাদ বাড়ানো, হজমের সমস্যা দূর করাসহ বেশ কার্যকারী আদা। অল্প মধুর সাথে কয়েক ফোটা আদার রস মিশিয়ে খেলে খাদ্যে বিষক্রিয়া জনিত প্রদাহ ও ব্যথা কমে যায়।

৪) লেবু:

লেবুর রস ক্ষতিকর ব্যাকটেরিয়া ধ্বংস করতে সাহায্য করে। চা এবং নিয়মিত খাবারের সাথে পরিমিত পরিমাণ লেবুর রস খেলে, খাদ্যে বিষক্রিয়া দূর হয়।

৫) জিরা:

জিরার ঔষধি গুণ অনেক। পেটের প্রদাহ উপশম করাসহ বিভিন্ন রোগ নিরাময়ে দারুণ উপকারী জিরা। পেটের সমস্যায় ডাল বা স্যুপের সাথে ১ চিমটি জিরাগুঁড়া মিশিয়ে খেলে বেশ উপকার পাওয়া যায়।

৬) পানি:

পানির প্রয়োজনীয়তা নতুন করে বর্ণনা করার কিছু নেই। পেটের যেকোন সমস্যা যেমন, পেট ব্যথা, ডায়রিয়া, অ্যাসিডিটিসহ বিভিন্ন সমস্যায় বেশি করে পানি করা উচিত। শরীরে ক্ষতিকর ব্যাকটেরিয়া দূর করা ও শরীরের আদ্রতা ধরে রাখতে পানির কোন তুলনা নেই।

ব্রেকিংনিউজ/

প্রিন্ট করুন

বিভাগ: স্বাস্থ্য