বসুন্ধরায় অগ্নিকাণ্ডে ১০০টি দোকান ক্ষতিগ্রস্ত

10528_Boshundhora0বিডি সংবাদ টোয়েন্টিফোর ডটকম : রাজধানীর বসুন্ধরা সিটিতে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় প্রায় ১০০টি দোকান ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে বলে জানিয়েছেন বসুন্ধরার ইনচার্জ লতিফুল ইসলাম। তবে বেশি ক্ষতির শিকার হয়েছে ৬-৭টি দোকান।
রবিবার (২১ আগস্ট ) বেলা ১১টা ২৩ মিনিটে মার্কেটের ছয় তলার একটি জুতার দোকান থেকে এ অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটে।
বসুন্ধরা সিটির মালিক সতির সভাপতি আব্দুল হান্নান জানান, আগুন প্রায় অনেকটাই নিয়ন্ত্রণে। যেটুকু আছে তা নেভানোর চেষ্টা চলছে।
ফায়ার সার্ভিসের  পরিচালক (অপারেশন) মেজর শাকিল বলেন,  জানান, আগুন নিয়ন্ত্রণে চলছে। এখনো পুরোপুরি নেভেনি। কিন্তু নিয়ন্ত্রণে আছে।
তিনি জানান, দমকল বাহিনীর পাশাপাশি পুলিশ ও র্যা বও আগুন নেভাতে চেষ্টা করছে। এক ঘণ্টা পরে এ বিষয়ে আরো জানানো হবে বলে জানান তিনি।
ফায়ার সার্ভিস দফতরের ডেপুটি পরিচালক মিজানুর রহমান ঘটনাস্থলে উপস্থিত সাংবাদিকদের জানান, আগুন লাগার পর এখন পর্যন্ত মোট ১৯ জনকে উদ্ধার করেছে দমকল বাহিনী। তাদের মধ্যে একজন নারীও রয়েছেন। তারা সবাই সুস্থ আছেন।
তিনি আরো জানান, মূলত ধোঁয়ার কারণে উপরের বিভিন্ন স্থানে তারা আটকে ছিলেন।
তবে এখনো ছাদে শপিং সেন্টারের ছাদে আটকে রয়েছেন আরো কয়েকজন। তবে তারা সবাই নিরাপদে আছেন বলে জানিয়েছেন ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা।
এদিকে বসুন্ধরা গ্রুপের এক্সিকিউটিভ ডিরেক্টর মেজর মুস্তবা রাহেল (অবসরপ্রাপ্ত) বিকাল পৌনে ৪টার দিকে উপস্থিত সাংবাদিকদের জানান, শপিং মলের ছয় তলার ছয়টি দোকানে আগুন লাগে। এগুলোর বেশির ভাগই জুতা ও লেদার সামগ্রীর। আগুন নিয়ন্ত্রণে দমকল বাহিনীর সঙ্গে মার্কেটের কর্মীরাও কাজ করছেন।
ফায়ার সার্ভিসের ডিরেক্টর (অপারেশন) মেজর শাকিল নেওয়াজ জানান, আগুন নিয়ন্ত্রণ ও উদ্ধার কাজে ফায়ার সার্ভিসের দেড়শতাধিক কর্মী কাজ করছেন। মূলত মার্কেটের ভেতরে ধোঁয়া কুণ্ডলির কারণে তাদের কাজ করতে বিঘ্ন ঘটছে। তবে এখন পর্যন্ত কোনো হতাহতের খবর পাওয়া যায়নি।
সরেজমিনে দেখা যায়, প্রচুর কালো ধোয়া আর আগুনের কারণে আশেপাশের মানুষদের মাঝে আতঙ্ক বিরাজ করছে। বিশেষ করে ভবনের পিছনের দিকে ধোয়া বেশি ছড়িয়েছে। মার্কেটকে ঘিরে উৎসুক জনতার ভিড় রয়েছে অনেক। তাদের নিয়ন্ত্রণ করতে পুলিশ-প্রশাসন কাজ করছে।
এ ঘটনায় ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণ এখনো জানা যায়নি। তবে এ প্রসঙ্গে বসুন্ধরা সিটির ছয় তলার একজন কাপড় ব্যাবসায়ী মো. হাসান ব্রেকিংনিউজকে বলেন, ‘মার্কেটে ঈদ উপলক্ষে অনেক মাল তোলা হয়েছে। আর্থিক হিসাবে ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণ অনেক বেশী হওয়ার আশঙ্কা রয়েছে।’
ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন ঢাকা উত্তরের মেয়র আনিসুল হক। এ সময় তার সঙ্গে আরও অনেকে উপস্থিত ছিলেন।ব্রেকিংনিউজ

প্রিন্ট করুন

বিভাগ: অন্যান্য,দুর্যোগ-দুর্ঘটনা