বিসিসিআইয়ের মসনদে তিন বছর থাকবেন দাদা!

স্পোর্টস ডেস্ক: ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিসিআই) মসনদে বসেছেন মাত্র ১০ মাসের জন্য। চারদিকে প্রশ্ন উঠেছে ক্রিকেটের উন্নয়নে এই সময়টা কি যথেস্ট? হঠাৎ ভারতের ক্রিকেট মহলে জোর গুঞ্জন, ১০ মাসের বদলে তিন বছরের জন্য সভাপতির পদে থাকতে পারেন সৌরভ গাঙ্গুলি।

পহেলা ডিসেম্বর মুম্বাইয়ে ভারতীয় ক্রিকেট কন্ট্রোল বোর্ডের সাধারণ সভাতেই পরিষ্কার হয়ে যাবে সৌরভের কার্যকালের মেয়াদ কতদিনের। এ সময় বিসিসিআইয়ের সংবিধান সংশোধনও করা হতে পারে।

বিসিসিআই সূত্রের খবর, আগামী তিন বছর সৌরভকে বোর্ড প্রেসিডেন্ট ও জয় শাহকে সচিব পদে বহাল রাখার জন্য সংবিধান সংশোধন করার উদ্যোগ নেওয়া হবে সেই সভাতেই।

বিসিসিআইয়ের মসনদে বসার পর থেকে একের পর এক সিদ্ধান্ত নিচ্ছেন সৌরভ। টেস্ট ক্রিকেটে দিবা-রাত্রির ম্যাচ চালু করছেন। ২২ তারিখ ইডেন গার্ডেন্সে দিন-রাতের টেস্টের গোলাপি বল গড়াবে। আইপিএল থেকে ছেঁটে ফেলা হয়েছে উদ্বোধনী অনুষ্ঠান।

সৌরভ যদি তিন বছর চেয়ারে থাকেন, তাহলে এমনই সব বলিষ্ঠ সিদ্ধান্ত নিতে তাকে দেখা যেতে পারে বলে মনে করা হচ্ছে। পরিস্থিতি কোন দিকে গড়ায় সেটাই দেখার।

সূত্রের খবর, মুম্বাইয়ের সাধারণ সভার জন্য ভারতের সমস্ত রাজ্যের ক্রিকেট সংস্থার কর্তাদের উপস্থিত থাকার জন্য নোটিস দিয়েছেন জয় শাহ। সেই সভায় পুরনো সংবিধান সংশোধন করে নতুন সংবিধান রচনা করা হবে বলে শোনা যাচ্ছে।

আগের নিয়ম অনুযায়ী, বোর্ড ও রাজ্য ক্রিকেট সংস্থার কোনও পদাধিকারী টানা দু’বার একই পদে থাকলে, পরের দফায় তিনি আর বোর্ডের কোনও নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করতে পারবেন না। সেই নিয়ম অনুযায়ী, বোর্ড সভাপতি পদে আর ৯ মাস মতো থাকতে পারবেন সৌরভ। বোর্ডের আসন্ন সাধারণ সভায় আগের এই নিয়মেরই সংশোধন করা হবে বলে শোনা যাচ্ছে।

তবে এই নিয়ম পরিবর্তন করা হতে পারে। সংশোধন করে নতুন নিয়মে রাখা হবে, বোর্ডের (রাজ্য ক্রিকেট সংস্থা নয়) কোনও পদাধিকারী টানা দু’বার একই চেয়ারে বসলে, পরের বার আর তিনি ভোটে দাঁড়াতে পারবেন না। এই নিয়ম অনুযায়ী সৌরভ তিন বছর বোর্ড প্রেসিডেন্ট হিসেবে কাজ করতেই পারেন। এর সঙ্গে সঙ্গেই ৭০ বছর বা তার বেশি বয়সি কোনও ব্যক্তির বোর্ডের পদাধিকারী হওয়া নিয়েও বোর্ডের সভায় আলোচনা হতে পারে বলে শোনা যাচ্ছে।

প্রিন্ট করুন

বিভাগ: খেলাধুলা