‘বুলবুল’ এখন নিম্নচাপ, লণ্ডভণ্ড উপকূলে নিহত ৬

বিডি সংবাদ টোয়েন্টিফোর ডটকম: বাংলাদেশের দক্ষিণ-পশ্চিম উপকূলে তাণ্ডব চালিয়ে দুর্বল হয়ে পড়েছে ঘূর্ণিঝড় ‘বুলবুল’। সুন্দরবন-সাতক্ষীড়া-খুলনা-বরগুনা-বরিশাল হয়ে এটি এখন বাংলাদেশ অতিক্রম করছে। উপকূলের কয়েক ঘণ্টা তাণ্ডব চালিয়ে খুলনা, বাগেরহাট, বরগুনা, পটুয়াখালী ও সাতক্ষীরায় ৬ প্রাণ নিয়েছে এই ঘূর্ণিঝড়টি। এছাড়াও এসব অঞ্চলে বেশ কয়েকজন আহত হয়েছেন।

শনিবার (৯ নভেম্বর) মধ্যরাতে সুন্দরবন হয়ে বাংলাদেশে আঘাত হানে ‘বুলবুল’। শক্তি হারিয়ে রবিবার (১০ নভেম্বর) সকালের দিকে অতি প্রবল ঘূর্ণিঝড়টি গভীর নিম্নচাপ হিসেবে বাংলাদেশে অবস্থান করছে।

রবিবার সকাল ১০টার দিকে বাগেরহাটের রামপালের উজোলপুর ইউনিয়নের ভরসাপুর এলাকায় বুলবুলের তাণ্ডবে ভেঙে পড়া গাছচাপায় ছামিয়া আক্তার (১৫) নামে এক কিশোরী নিহত হয়েছে।

শনিবার রাত সাড়ে ৩টার দিকে পটুয়াখালীর মির্জাগঞ্জে গাছ উপড়ে বসত ঘরের ওপর পড়ে হামেদ ফকির নামে এক বৃদ্ধ নিহত হয়েছেন বলে নিশ্চিত করেছেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. সরোয়ার হোসেন জানান।

খুলনার দাকোপ উপজেলায় প্রমিলা মন্ডল (৫২) নামে এক নারী ঝড়ের সময় গাছ চাপা পড়ে নিহত হয়েছেন। এছাড়া দিঘলিয়া সেনহাটি গ্রামের আলমগীর হোসেনও (৩৫) গাছ চাপায় নিহত হয়েছেন।

বরগুনা সদর উপজেলার একটি আশ্রয়কেন্দ্রে হালিমা খাতুন নামে এক নারীর মৃত্যু হয়েছে। ঘূর্ণিঝড় বুলবুলে এর কারণে তিনি উপজেলার এম বালিয়াতলী ইউনিয়নের ডিএম কলেজ আশ্রয়কেন্দ্রে আশ্রয় নিয়েছিলেন। শনিবার রাতে তার মৃত্যু হয়।

এছাড়াও সাতক্ষীরা থেকেও একজনের মৃত্যুর খবর পাওয়া গেছে। তবে এ ব্যাপারেও তাৎক্ষণিকভাবে বিস্তারিত তথ্য পাওয়া যায়নি।

এদিকে ঘূর্ণিঝড় ‘বুলবুল’র তাণ্ডবে সাতক্ষীরা, খুলনা, বাগেরহাট, পটুয়াখালী, পিরোজপুর, বরিশাল, বরগুনা, লক্ষীপুরসহ উপকূলের জেলাগুলোর বিভিন্ন উপজেলা ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। বিশেষ করে উপকূলীয় উপজেলায় তাণ্ডব চলেছে ‘বুলবুল’র। এতে শত শত কাঁচাঘর বিধ্বস্ত হয়েছে। হাজার হাজার গাছপালা উপড়ে পড়েছে।

ঘূর্ণিঝড় বুলবুলের অগ্রবর্তী অংশ সুন্দরবনের বঙ্গবন্ধু আইল্যান্ড, হিরণ পয়েন্ট, দুবলারচর, মেহের আলীর চর, অফিসকিল্লা, মাঝেরচর, আলোরকোল, মরণেরচরে আছড়ে পড়ে। ১২০ কিলোমিটার বেগে ঝড়ো হাওয়া বইছিল।

ঘূর্ণিঝড়টি নিম্নচাপে পরিণত হওয়ায় মোংলা ও পায়রা সমুদ্র বন্দরসমূহকে ১০ নম্বর মহাবিপদ সংকেত নামিয়ে এবং চট্টগ্রাম সমুদ্র বন্দরকে ৯ নম্বর মহাবিপদ সংকেত নামিয়ে তার পরিবর্তে তিন নম্বর স্থানীয় সতর্ক সংকেত দেখাতে বলা হয়েছে। পাশাপাশি, কক্সবাজার সমুদ্র বন্দরকে ৪ নম্বর সংকেত নামিয়ে তার পরিবর্তে তিন নম্বর স্থানীয় সতর্ক সংকেত দেখাতে বলা হয়েছে।

দুপুরে আবহাওয়া বার্তায় বলা হয়েছে, ঘূর্ণিঝড় বুলবুল অনেকটা দুর্বল হয়ে এটি উত্তর-পূর্ব দিকে এগোচ্ছে। এটি বর্তমানে বরিশাল ও পটুয়াখালী অঞ্চলে গভীর নিম্নচাপে পরিণত হয়ে অবস্থান করছে। গভীর নিম্নচাপের প্রভাবে চট্টগ্রাম, নোয়াখালী, লক্ষ্মীপুর, ফেনী, চাঁদপুর, বরগুনা, পটুয়াখালী, ভোলা, বরিশাল, পিরোজপুর, ঝালকাঠি, বাগেরহাট, খুলনা, সাতক্ষীরা, ফরিদপুর, মাদারীপুর, কুমিল্লা, ঢাকা, সিলেট ও ময়মনসিংহ জেলাগুলোতে ভারী থেকে অতি ভারী বর্ষণসহ দমকা অথবা ঝোড়ো হাওয়া বয়ে যেতে পারে বলে জানায় আবহাওয়া অধিদফতর।

ব্রেকিংনিউজ

প্রিন্ট করুন

বিভাগ: দুর্যোগ-দুর্ঘটনা