মানুষকে বোঝাতে হবে জঙ্গিবাদ ইসলামের পথ নয়-প্রধানমন্ত্রী

9779_hainaবিডি সংবাদ টোয়েন্টিফোর ডটকম : ইসলামের মহান বাণী মানুষের কাছে পৌঁছে দিতে আলেম সমাজের প্রতি আহ্বান জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, ‘দেশের মানুষের মধ্যে সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদের বিরুদ্ধে একটা চেতনা সৃষ্টি হয়েছে। এ চেতনাকে আরও শাণিত করতে হবে। মানুষকে বোঝাতে হবে জঙ্গিবাদ ইসলামের পথ নয়।’
কেউ যেন সন্ত্রাসের পথে না যায় সেজন্য সন্ত্রাসবাদের বিরুদ্ধে জনমত সৃষ্টিরও আহ্বান জানান প্রধানমন্ত্রী।
বৃহস্পতিবার (১১ আগস্ট) সকালে রাজধানীর খামারবাড়ির কৃষিবিদ ইনস্টিটিউট বাংলাদেশ (কেআইবি) মিলনায়তনে ‘ইসলামের দৃষ্টিতে সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদ এবং আমাদের করণীয়’ শীর্ষক ওলামা সম্মেলনে তিনি এ কথা বলেন। সম্মেলনের আয়োজন করে বাংলাদেশ জমিয়তুল উলামা।
প্রধানমন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশে প্রায় ৯০ ভাগ মানুষ ইসলাম ধর্মে বিশ্বাস করে। কিন্তু এখানে সুন্দর বিষয় হলো এক ধর্মের মানুষ আরেক ধর্মের মানুষকে শ্রদ্ধা করেন, সম্মান করেন, সহযোগিতা করেন। এটা এদেশের মানুষের সবচেয়ে বড় অর্জন।’
সম্মেলনে আলেম সমাজের পক্ষ থেকে কওমী মাদ্রাসা সনদ দেওয়ার উদ্যোগ বাস্তবায়নের দাবির প্রেক্ষিতে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘সনদ দিতে হলে ন্যূনতম একটা কারিকুলাম দরকার। আমরা কওমী মাদ্রাসা কমিশন গঠন করে দিয়েছি। কিন্তু কওমী মাদ্রাসার ৫টি বোর্ড একমত হতে পারেনি।’
প্রধানমন্ত্রী বলেন, পৃথিবীর সবচেয়ে মানবিক ও উদার, শান্তি-সৌহার্দ্য ও সহনশীলতার ধর্ম ইসলাম। সবচেয়ে দুঃখ লাগে যখন সামান্য কিছু লোক ধর্মের নাম ব্যবহার করে সন্ত্রাস চালাচ্ছে, মানুষ হত্যা করছে। আমাদের পবিত্র ধর্মকে হেয় করছে।’
তিনি আরও বলেন, ‘যারা সন্ত্রাস করে, মানুষ হত্যা করে তারা আদৌ কোনো ধর্মে বিশ্বাস করে কিনা সেটা দেখা দরকার।’
অনুষ্ঠানে ১ লাখেরও অধিক আলেম স্বাক্ষরিত ৩০ খণ্ডের সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদবিরোধী ইসলামের শান্তির বাণী নিয়ে রচিত ফতোয়া প্রতীকী হিসেবে প্রধানমন্ত্রীর হাতে তুলে দেন মাওলানা ফরিদউদ্দীন মাসউদ। ব্রেকিংনিউজ

প্রিন্ট করুন

বিভাগ: অন্যান্য,জাতীয়,টপ ৬