মোবাইলে কল পেয়ে বাসা থেকে বের হন বিলকিস, পুলিশের ধারণা ‘পরকীয়া’

জেলা প্রতিনিধি: কুষ্টিয়ার কুমারখালীতে একটি প্রাইভেট হাসপাতালের নার্স হিসেবে কর্মরত ছিলেন বিলকিস আক্তার (৩২)। গত শনিবার অফিস শেষ করে দুপুর ২টার দিকে বাসায় ফেরার পর হঠাৎ একটি ফোন আসলে বিকেল ৫টার দিতে তড়িঘড়ি করে বাসা থেকে বের হয়ে যান তিনি। এর পর আর বাসায় ফেরেননি।

অনেক খোঁজাখুজির পর গতকাল মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ৮টার দিকে উপজেলার চাপড়া ইউনিয়নের কাঞ্চনপুর বাঁশের সাঁকো সংলগ্ন এলাকা থেকে নিখোঁজের ৩ দিন পর বিলকিসের বস্তাবন্দি লাশ উদ্ধার করে পুলিশ।

বিলকিসের স্বামীর নাম রবিউল ইসলাম। তিনি পেশায় একজন মাছ ব্যবসায়ী। বিলকিস শহরের হাসপাতাল মোড় এলাকায় ডক্টরস ল্যাব অ্যান্ড প্রাইভেট হাসপাতালের নার্স হিসেবে কর্মরত ছিলেন।

পরকীয়ার জেরে হত্যার শিকার হয়েছেন বিলকিস- প্রাথমিকভাবে এমনটিই ধারণ করছে পুলিশ। তবে এ ঘটনায় এখনও কাউকে আটক করা যায়নি।

এ বিষয়ে কুমারখালী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) জাহাঙ্গীর আলম জানান, লাশের ময়নাতদন্ত হয়েছে। কেউ যাতে ওই নারীকে শনাক্ত করতে না পারে সেজন্য দুর্বৃত্তরা বিলকিসের মুখ ঝলসে দেয়ার চেষ্টা করে।

এ ঘটনায় কুষ্টিয়া মডেল থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি দায়ের করেছেন বিলকিসের স্বামী রবিউল ইসলাম।

প্রিন্ট করুন

বিভাগ: খুলনা,সারাদেশ