নির্বাচিত খবর

রাজশাহীর মোহনপুরে ‘আম্পান’র তাণ্ডবে ফল-ফসলের ব্যাপক ক্ষতি

রিপন আলী, মোহনপুর: ঘুর্ণিঝড় আম্পানের প্রভাবে রাজশাহীরর মোহনপুরে বিভিন্ন ফসলের ব্যপক ক্ষয়ক্ষতি সাধিত হয়েছে। বোরো ধান ও পানবরজ অধ্যুষিত উপজেলার উল্লেখযোগ্য কেশরহাট পৌর এলাকা, ধুরইল, ঘাসিগ্রাম, মৌগাছি, জাহানাবাদ, রায়ঘাটী, বাকশিমইল ইউনিয়নের উপর দিয়ে বজ্রবৃষ্টিসহ ঝড়ো হাওয়া বয়ে গেছে।

একারণে কয়েক শতাধিক পানবরজ ভেঙ্গে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। আমসহ উঠতি ফসল বোরোধানের ব্যপক ক্ষতি হয়েছে। মাটিতে নুয়ে পড়েছে পট্ল, লাউ, শশা ও ঝিঙে মাচা। এছাড়াও কলা, সজনে,লালশাক, ঢেড়শ, করলা ও অন্যান্য ফসলেরও ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। এমনিতেই এখানকার কৃষকরা করোনা পরিস্থিতির কারণে বোরোধান ঘরে তুলতে শ্রমিক সংকটে ভুগছিলেন। 

এমন মহূর্তে প্রাকৃতিক দূর্যোগ আম্পানের তান্ডবের ফলে আরো শ্রমিক সংকটের আশঙ্কা করছেন স্থানীয় কৃষকরা। উপজেলার মহববতপুর গ্রামের সোহরাব নামে একজন পানচাষি জানিয়েছেন, ঝড়বৃষ্টির কারণে পানবরজ উপড়ে মাটিতে পড়ে গেছে। অনেক বরজের পানগাছ ভেঙ্গে বিনষ্ট হয়েছে। এতে ক্ষতির পাশাপাশি শ্রমিক খরচ বাড়বে প্রায় দ্বিগুণ হারে। ধুরইল ইউনিয়নের ভীমনগর গ্রামের মোমিনুল ইসলাম বলেন আমার ১০ বিঘা জমিতে ধান আছে তার মধ্যে ৫ বিঘা জমি ধান কাটা মত হয়েছে আর বাকী ৫ বিঘা ধান কাচা হয়ে আছে। 

ঝড়ের কারণে ধান মাটিতে নুয়ে পড়েছে এতে ধান কাটতে সময় ও শ্রমিক দ্বিগুণ হবে। এতে কৃষক হিসেবে আমি অনেক ক্ষতির মুখে পড়েছি। এই বিষয়ে জানতে চাইলে, মোহনপুর উপজেলা কৃষি অফিসার কৃষিবিদ রহিমা খাতুন বলেন, মোহনপুর ছোট আয়তনের একটি উপজেলা।

এখানে পানবরজসহ অনেক মূল্যবান ফসলের চাষাবাদ হয়ে থাকে। এখন কৃষকদের বোরোধান ঘরে তোলার পূর্ণ মৌসুম। ঝড়ের কারণে বোরোধান, ফল, ফসল ও পানবরজের অনেকটায় ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে।

প্রিন্ট করুন

বিভাগ: রাজশাহী,সারাদেশ