রাজারহাটে অজ্ঞাত ব্যক্তির বিচ্ছিন্ন হাত-পা ও মাথা উদ্ধার

কুড়িগ্রাম প্রতিনিধি: কুড়িগ্রামের রাজারহাট উপজেলায় দেহবিহীন এক অজ্ঞাত ব্যক্তির বিচ্ছিন্ন হাত-পা ও মাথা উদ্ধার করেছে থানা পুলিশ। মঙ্গলবার (২২ অক্টোবর) উপজেলার চাকিরপশার ইউনিয়নের নাককাটির হাট বাজারের চাকিরপশার ইউনিয়ন স্বাস্থ্য কেন্দ্রের পাশে একটি ডোবায় লাশের টুকরাগুলো পাওয়া গেছে।

এলাকাবাসী ও পুলিশ জানায়, মঙ্গলবার সকালে ওই ডোবার পাশে অবস্থিত একটি পরিবারের লোকজন লাশের খণ্ডিত হাত দেখতে পেয়ে চিৎকার দেয়। চিৎকার শুনে লোকজন ছুটে এসে লাশের বিছিন্ন হাত, মাথা ও পা দেখতে পায়। খবর পেয়ে রাজারহাট থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে লাশের খণ্ডিত ২ হাত, মাথা ও ১ টি পা উদ্ধার করে। তবে অপর একটি পা ও দেহ পাওয়া যায়নি। লাশের মাথাটি একটি লাল গেঞ্জি দিয়ে মোড়ানো ছিল। ছিন্ন মুন্ডটির মুখমণ্ডল দেখতে গোলাকার এবং খোঁচা খোঁচা দাঁড়ি আছে। এসময় লাশের পাশে একটি লাল রংয়ের ভ্যানিটি ব্যাগ, নীল রংয়ের কাপড়ের ব্যাগ, ব্যাগের ভিতরে মোবাইল নম্বরসহ কাগজের চিরকুট, একটি নীল রংয়ের চেক লুঙ্গী পাওয়া যায়।

খবর পেয়ে কুড়িগ্রামের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মেনহাজুল আলম, উৎপল কুমার রায় , রাজারহাট থানা ওসি কৃষ্ণ কুমার সরকার ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন।

উল্লেখ্য, গত সোমবার (২১ অক্টোবর) কুড়িগ্রাম সদর উপজেলার বেলগাছা ইউনিয়ন পরিষদের পাশে একটি কাটা পা উদ্ধার করে পুলিশ। এ ঘটনার পরদিন মঙ্গলবার (২২ অক্টোবর) সকালে কুড়িগ্রাম-রাজারহাট সীমান্তবর্তী নাককাটির হাট এলাকায় লাশের টুকরোগুলো পাওয়া যায়।

এ বিষয়ে রাজারহাট থানার ওসি কৃষ্ণ কুমার সরকার বলেন, ঢাকা থেকে সিআইডির একটি দল ঘটনাস্থলে এসে লাশের সুরতহাল রিপোর্ট তৈরি করেন। লাশটি কার তা শনাক্ত করার চেষ্টা চলছে। চিরকুটে থাকা মোবাইল নম্বরটি তদন্তের স্বার্থে বলা যাচ্ছে না। থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করা হয়েছে।

প্রিন্ট করুন

বিভাগ: রংপুর,সারাদেশ