নির্বাচিত খবর

রাসিকের বর্জ্য ব্যবস্থাপনা স্থায়ী কমিটির সভা অনুষ্ঠিত

অজয় ঘোষ: রাজশাহী সিটি কর্পোরেশনের বর্জ্য ব্যবস্থাপনা স্থায়ী কমিটির সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। মঙ্গলবার দুপুরে নগরভবনের সরিৎ দত্ত গুপ্ত সভাকক্ষে আয়োজিত সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন রাজশাহী সিটি কর্পোরেশনের মাননীয় মেয়র এ.এইচ.এম খায়রুজ্জামান লিটন।

সভায় বক্তব্য রাখতে গিয়ে মেয়র লিটন বলেন, পরিচ্ছন্নতায় দেশের অনন্য সিটিতে পরিণত হয়েছে রাজশাহী সিটি কর্পোরেশন। আর এ সাফল্যের দাবিদার মহানগরবাসীসহ সংশ্লিষ্ট সকলে। আমাদের এ সাফল্য ধরে রাখতে হবে। রাজশাহী মহানগরীর বর্জ্য ব্যবস্থাপনা কার্যক্রম উন্নয়নে নতুন প্রকল্প গ্রহণ করা হবে। নগরীতে আরও ১০টি সেকেন্ডারী ট্রান্সফার স্টেশন নির্মাণ করা হবে।

মেয়র বলেন, নগরীর সকল ড্রেনসমূহের কাদামাটি অপসারণসহ পরিচ্ছন্নতায় বিশেষ কার্যক্রম গ্রহণের ফলে আগামী বর্ষা মৌসুমে রাজশাহী মহানগরীতে জলাবদ্ধতা আর হবে না আশা করছি। গত মেয়াদে দায়িত্ব পালনকালে নগরীর সকল ড্রেনসমূহের কাদামাটি অপসারণ কার্যক্রম করা হয়েছিল যার সুফল রাজশাহীবাসী ভোগ করেছিল। এবারও বিশেষ এ কার্যক্রম চলমান রয়েছে।

তিনি বলেন, করোনা পরিস্থিতির পাশাপাশি সারাদেশে ডেঙ্গুর প্রাদুর্ভাব দেখা দেওয়ায় রাজশাহী মহানগরীতে ইতোমধ্যে মশক নিয়ন্ত্রণে কার্যক্রম শুরু হয়েছে। পরিচ্ছন্নতা কার্যক্রম গতিশীল করতে বড় ড্রেনসমুহের পাশে রাস্তা নির্মাণ করা হবে। আগামীতে বড় কালভার্টগুলোর মুখে জাল লাগানোর পরিকল্পনা রয়েছে। নগরীর ড্রেনের পানি প্রবাহ গতিশীল করতে উত্তরে কাঁচাড্রেনসমূহের সংস্কারের উদ্যোগ গ্রহণ করা হবে।

বর্জ্য ব্যবস্থাপনা স্থায়ী কমিটির সভাপতি রাসিকের প্যানেল মেয়র-১ ও ১২নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর সরিফুল ইসলাম বাবুর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় বক্তব্য দেন কমিটির সদস্য ১৩নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর আব্দুল মোমিন, ১৮নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর শহিদুল ইসলাম। সভায় কমিটির সদস্য ৩০নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর শহিদুল ইসলাম পিন্টু, ১৯নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর তৌহিদুল হক সুমন, ৪নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর রুহুল আমিন টুনু, কমিটির সদস্য সচিব প্রধান পরিচ্ছন্ন কর্মকর্তা শেখ মোঃ মামুনসহ পরিচ্ছন্ন বিভাগের অন্যান্য কর্মকর্তাবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

প্রিন্ট করুন

বিভাগ: রাজশাহী,সারাদেশ