নির্বাচিত খবর

রুপপুরে ভারত-রাশিয়া নিরাপত্তা চুক্তির ব্যাখ্যা চায় বাংলাদেশ

বিডি সংবাদ টোয়েন্টিফোর ডটকম : রূপপুর পরমাণু বিদ্যুৎ কেন্দ্রের নিরাপত্তাসহ বিভিন্ন বিষয়ে বাংলাদেশ, রাশিয়া ও ভারতের মধ্যে ত্রিপক্ষীয় সমঝোতা চুক্তির প্রস্তাব করা হয়েছে। এই চুক্তির বিষয়ে ইতোমধ্যে পর্যালোচনা করেছে বাংলাদেশ। চুক্তির আওতায় ভারত ও রাশিয়ার মধ্যে নিরাপত্তা সহযোগিতা চুক্তির ব্যাখ্যা জানতে চায় ঢাকা।

এর আগেও রূপপুর পরমাণু বিদ্যুৎকেন্দ্রের যন্ত্রপাতি সরবরাহ ও পরামর্শ সেবাসহ বিভিন্ন বিষয়ে সহযোগিতা করবে ভারত। এজন্য বাংলাদেশ, রাশিয়া ও ভারত একটি ত্রি-পক্ষীয় সমঝোতা চুক্তিও (এমওইউ) সই করেছে।

নতুন করে এই নিরাপত্তার বিষয়ে রাশিয়ার রসটেকনাডজর, ভারতের এটমিক এনার্জি রেগুলেটরি বোর্ড ও বাংলাদেশের এটমিক এনার্জি রোগুলেটরি অথরিটি (বিএইআরএ) ওই এমওইউ স্বাক্ষরের উদ্যোগ নিয়েছে।

বিএইআরএ চেয়ারম্যান নাইয়ুম চৌধুরী জানান, ‘৭ আগস্ট আন্ত:মন্ত্রণালয়ের বৈঠকে রাশিয়া ও ভারতের প্রস্তাবিত এমওইউ পর্যালোচনা করা হয়েছে। বৈঠক থেকে এতে কিছু সংশোধনী আনার প্রস্তাব করা হয় যা শিগগিরই মস্কো ও নয়া দিল্লিতে পাঠানো হবে।’

বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তারা জানান, দেশ দুটির মধ্যে পারমাণবিক নিরাপত্তা চুক্তির শিরোনাম এবং বাস্তাবায়নের ক্ষেত্র সংজ্ঞায়িত করতে হবে। এজন্য ‘নিরাপত্তা বিধি’ শব্দগুচ্ছকে ‘ভৌত সুরক্ষা’ দিয়ে পরিবর্তন করতে হবে।

এছাড়াও খসড়া এমওইউ’তে বেশ কিছু পরিবর্তন আনার কথা বলবে বাংলাদেশ বলেও জানান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তারা।

এক হাজার ২০০ মেগাওয়াট ক্ষমতার প্রথম ইউনিট ২০২৩ সালের অক্টোবরে এবং দ্বিতীয় ইউনিট ২০২৪ সালে চালু হওয়ার কথা রয়েছে। রাশিয়ার ঋণে পাবনার ঈশ্বরদীতে ১২.৬৫ বিলিয়ন ডলারের বিদ্যুৎ কেন্দ্রটি বাস্তবায়নের লক্ষ্যে বাংলাদেশ, রাশিয়া ও ভারতের মধ্যে এরইমধ্যে অর্ধ ডজনের বেশি চুক্তি ও এমওইউ সই হয়েছে।

ব্রেকিংনিউজ/

প্রিন্ট করুন

বিভাগ: জাতীয়