নির্বাচিত খবর

শীতে স্বাস্থ্য সুরক্ষায় ৭ টিপস

স্বাস্থ্য ডেস্ক: তীব্র শৈত্যপ্রবাহে কাঁপছে দেশ। হাড় কাঁপুনি শীতে জবুথবু দেশের প্রতিটি জনপদ। সারা দিন রোদের দেখা নেই। কুয়াশা মোড়ানো চারপাশ। গরম কাপড় ভেদ করে শীত যেন হৃদপিণ্ডে কম্পন তুলেছে সাধারণ মানুষের। এই শীতে বিশেষত দেশের নিম্নবিত্ত ও ছিন্নমূল মানুষদের কষ্টটা হয়ে উঠে অসহনীয়।

শুধু তাই নয়, শীতে সব বয়সী মানুষের মধ্যে হাঁচি, কাশি, গলা ব্যথা, টনসিল, মাথা ব্যথা, জ্বরের প্রকোপ বেড়ে যায়। এসব সমস্যায় সবচেয়ে বেশি আক্রান্ত হন শিশু ও বৃদ্ধরা। তবে শীতের সঙ্গে যুদ্ধ করেই নিজেকে সুস্থ রাখতে হয়। এক্ষেত্রে স্বাস্থ্য সচেতনতার কোনও বিকল্প নেই।

শীতে স্বাস্থ্য সুরক্ষায় প্রাথমিক কিছু টিপস:
* সকালে ঘুম থেকে ওঠার পর সঙ্গে সঙ্গে গরম কাপড় পরে নিন। খালি গায়ে সকালের ঠান্ডা বাতাসে একদমই বের হবেন না।
* প্রকৃতিতে যেহেতু শৈত্যপ্রবাহ তাই এই কয়েকটা মাস একেবারে ঠান্ডা পানি না পান করে কুসুম গরম পানি পান করুন।
* অনেকক্ষণ হাঁটলে কিংবা দৌড়ুলে কিংবা খেলার মাঠ থেকে ফিরলে অথবা ভারি কোনও কাজ করার পর শরীর এমনিতেই ঘেমে উঠে। কিন্তু তাই বলে শীতের সময় ফ্রিজের ঠান্ডা পানি ভুলেও পান করবেন না।
* যদি খুব সকালে ঘুম থেকে উঠতে হয় কিংবা বেশি রাত করে ঘরের বাইরে থাকতে হয় তবে গায়ে মোটা সোয়েটার কিংবা চাদর জড়িয়ে নিন। পায়ে ও হাতে মোজা পরুন।
* গ্রামে কিংবা শহরে- এই শীতে কখনোই খালি পায়ে হাঁটাহাটি করা যাবে না। যতটা সম্ভব পায়ে চটি পরে রাখুন। পারলেও উলের মোজা পরুন।
* কাঁচা পানি কিংবা একেবারে ঠান্ডা পানিতে গোসল না করে হালকা গরম পানিতে গোসল করুন।
* টনসিল কিংবা গলা ব্যথা থেকে মুক্ত থাকতে প্রতিদিন অন্তত দু’বার কুসুম গরম পানিতে লবণ কিংবা চায়ের লিকার মিশিয়ে গার্গল করতে পারেন। প্রচুর পরিমাণে শাক-সবজি ও ফলমূল খান।

প্রিন্ট করুন

বিভাগ: স্বাস্থ্য