সরকার নড়বড়ে, তাই নির্বিচারে মানুষ হত্যা: দুদু

বিডি সংবাদ টোয়েন্টিফোর ডটকম : সরকারের অবস্থা নড়বড়ে হয়ে গেছে দাবি করে বিএনপির ভাইস-চেয়ারম্যান ও কৃষক দলের সাধারণ সম্পাদক শামসুজ্জামান দুদু বলেছেন, ‘আজ দেশের যে পরিস্থিতি এতে বোঝা যাচ্ছে সরকারের পরিস্থিতি ভালো না। আর ভাল না বলেই গত ৭ দিনে ৫০ জনকে নির্বিচারে হত্যা করা হয়েছে।’

সরকার নির্বিচারে দেশের সাধারণ মানুষের ওপর মাদকবিরোধী অভিযানের নামে ক্রসফায়ার চালিয়ে যাচ্ছে বলেও এসময় মন্তব্য করেন তিনি।

বৃহস্পতিবার (২৪ মে) সন্ধ্যায় জাতীয় প্রেসক্লাবের কনফারেন্স লাউঞ্জে জাতীয়তাবাদী পিরোজপুর ফোরাম ঢাকা আয়োজিত বিএনপি চেয়ারপারসন ও বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তি ও সুস্থতা কামনায় আয়োজিত আলোচনা সভা, দোয়া ও ইফতার মাহফিলে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

শামসুজ্জামান দুদু বলেন, ‘নির্বাচন আসলেই সরকার সংবিধানের কথা বলে। আর যখন নির্বিচারে মানুষ হত্যা করা হয় তখন সংবিধানের কথা তাদের মনে থাকে না।’

ইতিহাসের প্রসঙ্গে টেনে তিনি বলেন, ‘দেশে এ ধরনের বিচারবর্হিভূত হত্যাকাণ্ড ১৯৭২ থেকে ৭৫ সালে আমরা লক্ষ্য করেছি। তখন বাকশালের নাম করে যেখানে যাকে পেয়েছে সেখানেই নির্বিচারে হত্যা করা হয়েছে। যে দৃশ্য আজ আবারও দেখছে দেশবাসী।’

মিথ্যা ও সাজানো মামলায় কারাবন্দি বিএনপি চেয়ারপারসন ও সাবেক প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়ার অংশগ্রহণই কেবলমাত্র আগামী নির্বাচন সুষ্ঠু ও গ্রহণযোগ্য হওয়ার গ্যারান্টি দিতে পারে বলেও মন্তব্য করেন দুদু।

তিনি বলেন, ‘বর্তমান অবৈধ সরকার বেগম জিয়ার জনপ্রিয়তায় ভয় পেয়ে তাঁকে মিথ্যা ও সাজানো মামলায় কারাবন্দি করে রেখেছে। কারণ তিনি যতগুলো নির্বাচনে অংশগ্রহণ করেছেন কোনও নির্বাচনে পরাজিত হননি। তাঁকে কারাবন্দি করার উদ্দেশ্যই হচ্ছে সরকার ভাল নির্বাচন করতে চায় না।’

এসময় তিনি দলের নেতাকর্মীদের উদ্দেশ্যে বলেন, ‘আগামী নির্বাচনে সরকারের কোনও ষড়যন্ত্রই কাজে আসবে না। নির্বাচনের আগে কারাবন্দি বেগম জিয়া এবং আমাদের নেতাকর্মীরা বের হয়ে আসবেন এবং আগামী ডিসেম্বর থেকে জানুয়ারিতে আমরা সরকার গঠন করবো।’ তিনি বলেন, ‘ছাত্রসমাজ কেয়ারটেকার সরকার প্রতিষ্ঠা করেছিল বুকের রক্ত দিয়ে। আগামীতে বিএনপি যদি ক্ষমতায় যায় দেশের গণতন্ত্র জনগণের ভোটের অধিকার নিশ্চিত করা হবে। বিএনপি ক্ষমতায় গেলে বিদেশে যত টাকা পাচার হয়েছে তা ফিরিয়ে আনা হবে এবং যারা এ টাকা পাচার করেছে তাদেরকেও খুঁজে বের করে বিচারের আওতায় আনা হবে।’

সরকার ও প্রধানমন্ত্রীর কড়া সমালোচনা করে বিএনপির এই শীর্ষ নেতা বলেন, ‘এক মণ দুধের মধ্যে এক ফোঁটা ময়লা দিলে যেরকম সবটুকু দুধের মাহাত্ম্য নষ্ট হয়ে যায় ঠিক একই রকমভাবে একটি দেশের ক্ষতির জন্য বর্তমানে একজনই যথেষ্ট। সেই একজনের সঙ্গে তাল মিলিয়ে একই রকম কাজ করছে বর্তমান অবৈধ সরকার।’

তিনি বলেন, ‘আজকাল কোনও কিছু করতে হয় না, কোনও অপরাধও করতে হয় না- এমনিতেই বিরোধীদলের নেতাকর্মীদের বাসা থেকে তুলে নেয়া যায়। তবে যদি টাকা দেয়া হয় তাহলে ছেড়েও দেয়া হয়। না দিলে কোথায় গায়েব করে দেবে কেউ খুঁজে পাবে না। এই হচ্ছে বর্তমান সরকারের আসল চরিত্র।’

আয়োজক সংগঠনের সভাপতি মো.তোহার সভাপতিত্বে এসময় আরও উপস্থিত ছিলেন বিএনপির সাংগঠনিক বিলকিস জাহান শিরিন ও সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক আকন কুদ্দুসুর রহমান প্রমুখ।

ব্রেকিংনিউজ/

প্রিন্ট করুন

বিভাগ: রাজনীতি