সরকার যতই ১০ নম্বরি করুক, নির্বাচন বয়কট নয়: ড.কামাল

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট: গণফোরাম সভাপতি ও জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের শীর্ষ নেতা ড.কামাল হোসেন বলেছেন, ‘একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন আমরা বয়কট করবো না। নির্বাচন নিয়ে সরকার যতই ১০ নম্বরি করুক আমরা নির্বাচন বয়কট করবো না। কারণ একবার নির্বাচন বয়কট করে জাতিকে এখনও খেসারত দিতে হচ্ছে।’

শনিবার (১৭ নভেম্বর) সুপ্রিম কোর্ট চত্বরে জাতীয় আইনজীবী ঐক্যফ্রন্ট আয়োজিত আইনজীবীদের মহাসমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

মহাজোট সরকারকে ‘ভাওতাবাজির সরকার’ অ্যাখ্যা দিয়ে ড. কামাল বলেন, ‘এই সরকারকে ভাওতাবাজির জন্য গোল্ডমেডেল দেয়া উচিত।’

তিনি বলেন, ‘আওয়ামী লীগ সুপ্রিম কোর্টে বলেছিল- ২০১৪ সালের নির্বাচন পরিস্থিতির আলোকে নিয়েছি, দ্রুতই আরেকটি নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে।’

ড. কামাল আওয়ামী লীগের প্রতি প্রশ্ন রেখে বলেন, ‘সরকার কি এতই হালকা হয়ে গেছে যে কোর্টে দাঁড়িয়ে এ ধরনের কথা বলতে পারে। দ্রুত মানে কি পাঁচ বছর?’

তিনি বলেন, ‘আমরা বাংলাদেশের মানুষ দেশকে পরাধীনতার শৃঙ্খল থেকে মুক্ত করেছিলাম। আমরা দেশকে আবার পরাধীন বানাতে দিতে পারি না।’

ঐক্যফ্রন্টের এই প্রধান নেতা বলেন, ‘এই দেশের মালিক জনগণ। তারা ভোটের মাধ্যমে দেশের শাসনক্ষমতা নির্ধারণ করবে। কিন্তু দেশের মানুষকে এই অধিকার থেকে বঞ্চিত করে ২০১৪ সালে আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় আসে।’

ড. কামাল বলেন, ‘তারা কোর্টে দাঁড়িয়ে বলেছিলেন, আমরা পরিস্থিতির আলোকে এই নির্বাচন নিয়েছি। আমরা দ্রুত সময়ের মধ্যে আরেকটি নির্বাচন দেবো। ৫ বছর পেরিয়ে গেল। দ্রুত কথার অর্থ যে ৫ বছর তা আমরা জানতাম না।’

জাতীয় আইনজীবী ঐক্যফ্রন্টের আয়োজনে সুপ্রিম কোর্ট বার প্রাঙ্গণে মহাসমাবেশে সভাপতিত্ব করেন বাংলাদেশ সুপ্রিম কোর্ট বার অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি ও আইনজীবী ঐক্যফ্রন্টের আহ্বায়ক জয়নুল আবেদীন।

বাংলাদেশ সুপ্রিম কোর্ট বার অ্যাসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক ব্যারিস্টার এ এম মাহবুব উদ্দিন খোকনের সঞ্চালনায় মহাসমাবেশে উপস্থিত ছিলেন- বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর,স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ, ব্যারিস্টার জমির উদ্দিন সরকার, ভাইস চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট খন্দকার মাহবুব হোসেন, ব্যারিস্টার মোহাম্মদ শাহজাহান ওমর, চেয়ারপাসনের উপদেষ্টা অ্যাডভোকেট তৈমুর আলম খন্দকার, অ্যাডভোকেট নিতাই রায় চৌধুরী, যুগ্ম মহাসচিব অ্যাডভোকেট মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল, এবং খালেদা জিয়ার আইনজীবী অ্যাডভোকেট সানা উল্লাহ মিয়া প্রমুখ।

বিডি সংবাদ টোয়েন্টিফোর ডটকম/

প্রিন্ট করুন

বিভাগ: রাজনীতি