সাকিবের আস্থার প্রতিদান দিলেন মাহমুদউল্লাহ

স্পোর্টস ডেস্ক: ঘূর্ণি উইকেটে চট্টগ্রাম টেস্টের প্রথম দিনের প্রথম সেশনেই আফগানিস্তানের ব্যাটসম্যাদের ওপর আধিপত্য বিরাজ করতে শুরু করেছেন টাইগার বোলাররা। তাইজুলের জোড়া আঘাতের পর প্রথম ওভারেই অধিনায়ক সাকিবের আস্থার প্রতিদান দিয়েছেন সহ-অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ।

৪৮ রান দুই উইকেট হারানোর পর রহমত শাহ ও হাসমতউল্লাহ শহিদী মিলে ভালোই জুটি গড়ে তুলছিলেন। কিন্তু সাকিবের কৌশলটা পুরোপুরিভাবে কাজে লাগলো। ৩৩তম ওভারে বিপদের কাণ্ডারী খ্যাত মাহমুদউল্লাহর হাতে বল তুলে দেন সাকিব। আফগানদের দলীয় রান তখন ৭৭।

অধিনায়ককে নিরাশ করেননি মাহমুদউল্লাহ। ১৪ রান করা হাসমতউল্লাহকে ফিরিয়ে দাঁড়িয়ে পড়া এক জুটি ভেঙে দেন এই অফব্রেক বোলার। স্লিপে দাঁড়িয়ে থাকা সৌম্য সরকার দুর্দান্ত এক ক্যাচ নিয়ে হাসমতউল্লার বিদায় নিশ্চিত করেন। সঙ্গে সঙ্গে ওভারের দুই বল বাকি থাকতেই মধ্যাহ্ন বিরতির ইঙ্গিত দেন আম্পায়াররা।

এর আগে মঙ্গলবার (৫ সেপ্টেম্বর) সকাল সাড়ে ৯টায় চট্টগ্রামের জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে টসে জিতে ব্যাট করার সিদ্ধান্ত নেন আফগান অধিনায়ক রশিদ খান।

মধ্যাহ্ন বিরতির আগ পর্যন্ত আফগানিস্তানের সংগ্রহ ৩২.৪ ওভারে ৩ উইকেটে ৭৭ রান। রহমত শাহ ৩১ রানে অপরাজিত আছেন।

এদিকে নিজেদের দুই দশকের টেস্ট ইতিহাসে দ্বিতীয়বারের মতো কোনও পেসার ছাড়াই মাঠে নেমেছে সাকিব আল হাসানের দল। দলে নেয়া হয়েছে ৪ স্পিনারকে। স্পিন আক্রমণে সাকিবের সঙ্গে একাদশে আছেন তাইজুল ইসলাম, মেহেদী হাসান মিরাজ ও নাঈম হাসান। প্রয়োজনে বল তুলে দেয়া হবে মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ কিংবা মোসাদ্দেক হোসেন সৈকতের হাতে।

অন্যদিকে তামিম ইকবাল ও ইমরুল কায়েসের অনুপস্থিতিতে সাদমান ইসলামের সঙ্গে অপেন করবেন সৌম্য সরকার। তিন নম্বর পজিশনে মুমিনুল হক সৌরভ, চার সাকিব, পাঁচে মুশফিক, ছয় নম্বরে মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ, সাতে লিটন দাস, আটে মোসাদ্দেক হোসেন সৈকত খেলছেন।
এর আগে গেল বছরের ৩০ নভেম্বর মিরপুর শেরেবাংলা স্টেডিয়ামে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে দ্বিতীয় টেস্টে প্রথমবারের মতো কোনও পেসার ছাড়াই মাঠে নেমে ইতিহাসে নাম লিখিয়েছিল বাংলাদেশ।

বাংলাদেশ দল: সাকিব আল হাসান (অধিনায়ক), সৌম্য সরকার, সাদমান ইসলাম, মুমিনুল হক, মুশফিকুর রহিম (উইকেটরক্ষক), মাহমুদউল্লাহ, লিটন দাস, মোসাদ্দেক হোসেন, মেহেদী হাসান মিরাজ, তাইজুল ইসলাম, নাঈম হাসান।

প্রিন্ট করুন

বিভাগ: খেলাধুলা