সিলেটে অন্তঃসত্ত্বা গৃহবধূর লাশ উদ্ধার, স্বামী আটক

সিলেট প্রতিনিধি: সিলেটের ওসমানী নগর উপজেলায় মায়া বেগম (২৫) নামের এক অন্তঃসত্ত্বা নারীর লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। এ ঘটনায় তার স্বামী সাজ্জাদ মিয়াকে (৩৫) আটক করেছে পুলিশ। মঙ্গলবার (২৯ অক্টোবর) সকাল সাড়ে ১০টার দিকে তার স্বামীর বাড়ি থেকে তার লাশ উদ্ধার করা হয়।

নিহত মায়া বেগম উপজেলার তাজপুর ইউনিয়নের কাদিপুর গ্রামের সাজ্জাদ মিয়ার স্ত্রী ও সুনামগঞ্জ জেলার জগন্নাথপুর উপজেলার আশারকান্দি ইউনিয়নের জয়দা গ্রামের আনা মিয়ার মেয়ে। তিনি এক সন্তানের জননী এবং মৃত্যুর সময় সে ৯ মাসের অন্তঃসত্ত্বা ছিল।

পুলিশ ও নিহতের পরিবার জানায়, মঙ্গলবার সকালে মায়া বেগমের স্বামীর বাড়ি থেকে মোবাইলে মায়ার পিতা ও মামাকে জানানো হয় তাড়াতাড়ি মায়ার শ্বশুর বাড়িতে আসার জন্য। সংবাদ পেয়ে মায়ার স্বজনরা মেয়ের বাড়িতে গিয়ে মায়ার নিথর দেহ দেখতে পায়। এ সময় ঘরের ফ্যানের সঙ্গে গলায় ফাঁস দেয়া অবস্থায় সে ঝুলছিল। পরে বিষয়টি পুলিশকে জানালে তারা এসে মায়ার লাশ উদ্ধার করে থানায় নিয়ে যায়।

নিহত মায়ার মাম কালাম মিয়া জানান, যৌতুকের জন্য প্রায়ই মায়ার স্বামীসহ তার শ্বশুর বাড়ির লোকজন তাকে নির্যাতন করত। কয়েকদিন আগেই আমরা তার স্বামীকে ৪টি গরু দিয়েছি। যৌতুকের জন্য তার শ্বশুর বাড়ির লোকজন তাকে পরিকল্পিতভাবে হত্যা করে নাটক সাজাতে চেয়েছে। মায়ার ৫ বছরের এক কন্যা সন্তান রয়েছে এবং মৃত্যুর সময় সে ৯ মাসের অন্তঃসত্ত্বা ছিল। আমরা এ ব্যাপারে মামলা দায়েরের প্রস্তুতি নিচ্ছি।

ওসমানী নগর থানার এসআই শফিকুল ইসলাম জানান, নিহতের মৃতদেহ ফ্যানের সঙ্গে ঝুলানো অবস্থায় উদ্ধার করা হয়। জিজ্ঞাসাবাদের জন্য নিহতের স্বামী সাজ্জাদকে পুলিশ হেফাজতে নেওয়া হয়েছে।

ওসমানী নগর থানার ওসি রাশেদ মোবারক ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে নিহত গৃহবধূর লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। নিহতের স্বামী সাজ্জাদকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করা হয়েছে। এটি হত্যা নাকি আত্মহত্যা তা ময়নাতদন্তের রিপোর্ট না পাওয়া পর্যন্ত কিছু বলা যাচ্ছেনা। তবে নিহতের পরিবার লিখিত অভিযোগ দিলে তদন্ত করে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

প্রিন্ট করুন

বিভাগ: সারাদেশ,সিলেট