১২’শ শয্যায় উন্নীত হলো বগুড়া শজিমেক হাসপাতাল

বগুড়া প্রতিনিধি: বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ (শজিমেক) হাসপাতাল ৫০০ শয্যা থেকে ১২০০ শয্যায় উন্নিত করা হয়েছে। অর্থ মন্ত্রণালয় ব্যয় ব্যবস্থাপনা অধিশাখা ১৮ সেপ্টেম্বর এক প্রজ্ঞাপনে এই আদেশ জারি করা হয়। এর ফলে বগুড়াবাসীর দীর্ঘ দিনের যে দাবি ছিল তা পূরণ হলো। ১২শ শয্যার হাসপাতালে প্রয়োজনীয় লোকবল নিয়োগের পর পূর্ণাঙ্গভাবে চিকিৎসা সেবা পাবে রোগীরা।

সুত্রমতে প্রকাশ, ১৯৯৮ সালে ২৫০ শয্যার মোহাম্মদ আলী হাসপাতালে প্রথম বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজের যাত্রা শুরু হয়। এরপর মেডিকেল কলেজ ও হাসাপাতাল নতুন করে অবকাঠামো নির্মাণের পর ২০০৬ সালে ৫০০ শয্যা বিশিষ্ট শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে শহরের অদূরে সিলিমপুরে স্থানান্তর করা হয়। হাসপাতালটি ৫’শ শয্যার হলেও রোগী ভর্তি থাকে ১৩’শ থেকে ১৫’শ জন। রোগীরা বেড না পেয়ে হাসপাতলের মেঝেতে শুয়ে চিকিৎসা সেবা নিত। ফলে ৫০০ শয্যার জনবল নিয়ে ১৫’শ রোগীকে চিকিৎসাসেবা দিতে হিমশিম খেতে হতো।
বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজের উপাধ্যক্ষ ও বিএমএ বগুড়ার সাধারণ সম্পাদক প্রফেসর ডা. রেজাউল আলম জুয়েল জানান, এ হাসপাতালে শয্যা বাড়ার ফলে বগুড়াসহ উত্তরের কয়েকটি জেলা যেমন জয়পুরহাট, নওগাঁ, সিরাজগঞ্জ ও গাইবান্ধার রোগীদেরও ভোগান্তি কমবে।’
তবে ১২’শ শয্যার জন্য ইতোমধ্যে হাসপাতালের অবকাঠামো বৃদ্ধির সম্প্রসারণ কাজ প্রায় শেষ হযেছে। এতে ব্যয় হয়েছে প্রায় ৬৪ কোটি টাকা। সাড়ে ৪ তলা থেকে ৭ তলা পর্যন্ত ঊর্ধ্বমুখী সম্প্রসারণ করা হয়েছে।
এ ব্যাপারে বগুড়া জেলা পরিষদের প্যানেল চেয়ারম্যান সুলতান মাহমুদ খান রনি বলেন, সরকার সুষম উন্নয়নে বিশ্বাসী। বগুড়া শজিমেক হাসপাতালের শয্যা বর্ধিত করণসহ আরও উন্নয়নমূলক কাজ চলমান রয়েছে।

প্রিন্ট করুন

বিভাগ: রাজশাহী,সারাদেশ