১৪ কোম্পানির দুধ উৎপাদন ও বিক্রয় নিষিদ্ধ

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট: বিএসটিআই অনুমোদিত দেশের ১৪টি কোম্পানির পাস্তুরিত দুধে ক্ষতিকর উপাদন পাওয়ায় আগামী ৫ সপ্তাহের জন্য এসব কোম্পানির দুধ উৎপাদন, বিতরণ ও বিক্রয়ে নিষেধাজ্ঞা জারি করেছেন হাইকোর্ট।

রবিবার (২৮ জুলাই) বিচারপতি সৈয়দ রেফাত আহমেদের নেতৃত্বাধীন হাইকোর্ট বেঞ্চ এ আদেশ দেন।

নিষেধাজ্ঞার কবলে পড়া ১৪ কোম্পানির মধ্যে অন্যতম- মিল্ক ভিটা, ডেইরি ফ্রেশ, ঈগলু, ফার্ম ফ্রেশ, আফতাব মিল্ক, আল্ট্রা মিল্ক, আড়ং, প্রাণ মিল্ক, আয়রণ, পিউরা ও সেফ ব্র্যান্ড।

এদিন আদালতে বিএসটিআই’র পক্ষে ব্যারিস্টার সরকার এম আর হাসান এবং রিটের পক্ষে ছিলেন রিটকারী আইনজীবী ব্যারিস্টার অনিক আর হক ও মো. তানভীর আহমেদ শুনানিতে অংশ নেন।

এর আগে আদালতের নির্দেশ অনুসারে এসব পাস্তুরিত দুধের নমুনা পরীক্ষা করে বাংলাদেশ বিজ্ঞান ও শিল্প গবেষণা পরিষদ (বিসিএসআইআর), আইসিডিডিআর’বি এবং বাংলাদেশ প্রাণিসম্পদ গবেষণা ইনস্টিটিউটের ল্যাবরেটরি।

এর পর প্রতিবেদন পর্যালোচনা করে আজ এ নিষেধাজ্ঞা দেন উচ্চ আদালত।

গত ১৪ জুলাই আদালত এক আদেশে এ ১৪ কোম্পানির পাস্তুরিত দুধে অ্যান্টিবায়োটিক, ডিটারজেন্ট, এসিডিটি, ফরমালিন ও অন্যান্য ব্যাকটেরিয়ার উপস্থিতি আছে কিনা সেসবের নমুনা পরীক্ষা করে ৪টি ল্যাবকে প্রতিবেদন দাখিলের নির্দেশ দেন।

এর পর গত ২৩ জুলাই ৪টি ল্যাবের মধ্যে ৩টি ল্যাব আদালতের নির্দেশনা অনুযায়ী তাদের প্রতিবেদন হাইকোর্টে দাখিল করে। তবে জনস্বাস্থ্য ইনস্টিটিউটের ন্যাশনাল ফুড সেফটি ল্যাবরেটরি এখনও প্রতিবেদন দাখিল করেনি।

প্রিন্ট করুন

বিভাগ: আইন-আদালত