নির্বাচিত খবর

২০০ করার আগেই আউট শচীন, দর্শকের ভয়ে আউট দেননি আম্পায়ার!

বিডি সংবাদ টোয়েন্টিফোর ডটকম: বাইশ গজে ২৪ বছরের বর্ণাঢ্য কেরিয়ারে শচীন টেন্ডুলকার একের পর এক রেকর্ড করেছেন। সর্বকালের অন্যতম সেরা ব্যাটসম্যানের ঝুলিতে ক্রিকেটের সব সংস্করণ মিলিয়ে ১০০টি শতরানের সঙ্গে রয়েছে ৩৫০০০-এর ওপর আন্তর্জাতিক রান।

এহেন ক্রিকেট ঈশ্বর ২০১০ সালে এক অবিস্মরণীয় কীর্তি গড়েন। যা ছিল অকল্পনীয়। গোয়ালিওরের ক্যাপ্টেন রূপ সিং স্টেডিয়ামে শচীনের ব্যাট থেকে এসেছিল অপরাজিত ডাবল সেঞ্চুরি। বিশ্বের প্রথম ব্যাটসম্যান হিসেবে শচীন সেদিন পঞ্চাশ ওভারের ফরম্যাটে ২০০ রান করেছিলেন।

শচীনের ব্যাটে ভর করে ভারত সেদিন তিন উইকেট হারিয়ে ৪০১ রান তুলেছিল। জবাবে সফররত দক্ষিণ আফ্রিকা ২৪৮ রানে গুটিয়ে যায়। ১৫৩ রানে জেতে ভারত।

ঐতিহাসিক এই ম্যাচের স্মৃতিচারণা করলেন ডেইল স্টেইন। জিমি অ্যান্ডাসনের সঙ্গে তিনি স্কাই স্পোর্টস ক্রিকেটের পডকাস্টে এসেছিলেন। কিংবদন্তি প্রোটিয়া পেসার জানালেন যে, শচীন সেদিন ১৯০ রানের মাথায় আউট ছিলেন। কিন্তু দর্শকের ভয়ে আম্পায়ার শচীনকে আউট দেননি।

গোয়ালিওরে ১৪৭ বলে ২০০ করেছিলেন। ২৫টি চার ও তিনটি ছয় মেরেছিলেন অপরাজিত ইনিংসে।

স্টেইন বলছেন, “শচীন আমাদের বিরুদ্ধে প্রথম আন্তর্জাতিক ওয়ানডে ডাবল সেঞ্চুরি করে। আমার মনে হয় ও যখন ১৯০-এর ঘরে ছিল তখন এলবিডব্লিউ আউট হয়ে যায়। আম্পায়ার ইয়ান গাউল্ড ওকে আউট দেয়নি। আমি যখন আম্পায়ারকে জিজ্ঞাসা করি কেন উনি আউট দিলেন না? ইয়ান আমায় বলেছিল, বন্ধু চারপাশটা তাকিয়ে দেখ। আমি যদি ওকে আউট দিতাম তাহলে আর হোটেলে ফিরতে পারতাম না।”

ঘটনাচক্রে স্টেইনের এই দাবি অবাস্তব। কারণ পরিসংখ্যান বলছে শচীন সেদিন ১৪৭টি বলের মধ্যে ৩১টি স্টেইনের বল খেলেছিলেন। এর মধ্যে ১৯০-২০০’র ভিতর তিনটি ডেলিভারি ছিল। আর এই তিনটি ডেলিভারিই শচীন ব্যাটে খেলেছিলেন। এমনকী শচীন যখন ইতিহাসের দ্বারপ্রান্তে ছিলেন তখন কোনও এলবিডব্লিউয়ের আবেদনই জানাননি তিনি।

প্রিন্ট করুন

বিভাগ: খেলাধুলা