নির্বাচিত খবর

​একদিন পরেই মৃত্যু ও আক্রান্তের সর্বোচ্চ রেকর্ড ভেঙে গেল

বিডি সংবাদ টোয়েন্টিফোর ডটকম: প্রতিদিনই বাড়ছে আক্রান্তের সংখ্যা। প্রায় দিনই আগের দিনের সর্বোচ্চ আক্রান্তের রেকর্ড ভেঙে যাচ্ছে। আজও গত ২৪ ঘণ্টায় সর্বোচ্চ আক্রান্ত হয়েছে। ফলে হাজারের কোটায় আক্রান্ত হওয়ার একদিন পরেই সর্বোচ্চ আক্রান্ত হলো।

গত ২৪ ঘণ্টায় বাংলাদেশে ৭৯০০ নমুনা পরীক্ষা করে আরও ১১৬২ জন করোনা ভাইরাসের রোগী শনাক্ত হয়েছেন, ফলে দেশে মোট আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়াল ১৭ হাজার ৮২২ জন।

এছাড়াও মৃত্যুর সংখ্যাতেও অতীতের সব রেকর্ড ভেঙে গেছে। গত ২৪ ঘণ্টায় মৃত্যুর মিছিলে যোগ হয়েছে আরও ১৯ প্রাণ। ফলে দেশে করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুর সংখ্যা দাঁড়ালো ২৬৯ জনে।

করোনার সর্বশেষ পরিস্থিতি নিয়ে বুধবার (১৩ মে) দুপুরে সরকারের জাতীয় রোগতত্ত্ব, রোগ নিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা ইনস্টিটিউটের (আইইডিসিআর) নিয়মিত বুলেটিনে এতথ্য জানানো হয়।

ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে বুলেটিনে সংযুক্ত হয়ে এ স্বাস্থ্য অধিদফতরের ভারপ্রাপ্ত মহাপরিচালক (অতিরিক্ত মহাপরিচালক প্রশাসন) অধ্যাপক ডা. নাসিমা সুলতানা জানান, আক্রান্তদের মধ্যে গত ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হয়েছেন ২১৪জন। ফলে এ পর্যন্ত সুস্থ হয়েছেন মোট ৩৩৬৮ জন।ব্রেকিংনিউজ

তিনি আরও জানান, মারা যাওয়া ১৯ জনের মধ্যে ১২ জন পুরুষ ও সাত জন নারী। এর মধ্যে ঢাকা শহরে ১৩ জন, নারায়ণগঞ্জে একজন, মুন্সীগঞ্জে একজন, খুলনা বিভাগে একজন এবং চট্টগ্রাম বিভাগে তিন জন।

বয়স বিশ্লেষণে দেখা যায় যায়, ০ থেকে ১০ বছরের মধ্যে একটি মেয়েশিশু আছে, ৩১ থেকে ৪০ বছরের মধ্যে একজন, ৫১ থেকে ৬০ বছরের মধ্যে সাত জন, ৬১ থেকে ৭০ বছরের মধ্যে পাঁচ জন, ৭১ থেকে ৮০ বছরের মধ্যে পাঁচ জন রয়েছেন।

নাসিমা সুলতানা বলেন, গত ২৪ ঘণ্টায় আইসোলেশনে রাখা হয়েছে ১৫০ জনকে। বর্তমানে আইসোলেশনে আছেন তিন হাজার ৪৩৫ জন। ২৪ ঘণ্টায় আইসোলেশন থেকে ছাড়পত্র পেয়েছেন ৭৬ জন, এখন পর্যন্ত ছাড়পত্র পেয়েছেন এক হাজার ৩৩২ জন।

তিনি আরও বলেন, গত ২৪ ঘণ্টায় প্রাতিষ্ঠানিক ও হোম কোয়ারেন্টিন করা হয়েছে দুই হাজার ৫৫৮ জনকে। এখন পর্যন্ত মোট দুই লাখ ২৭ হাজার ৬৪২ জনকে কোয়ারেন্টিন করা হয়েছে। কোয়ারেন্টিন থেকে গত ২৪ ঘণ্টায় ছাড় পেয়েছেন দুই হাজার ৬৬২ জন এবং এখন পর্যন্ত মোট ছাড় পেয়েছেন এক লাখ ৮২ হাজার ৩৬১ জন। বর্তমানে মোট কোয়ারেন্টিনে আছেন ৪৫ হাজার ২২১ জন।

প্রিন্ট করুন

বিভাগ: জাতীয়