আন্দোলনে প্রযোজক আবদুল আজিজের মেয়ে ‘আমার মেয়ের যেন কিছু না হয়’

435

বিনোদন ডেস্ক : ২৯ জুলাই ঢাকার কুর্মিটোলা জেনারেল হাসপাতালের অদূরে বিমানবন্দর সড়কে রেডিসন হোটেলের উল্টো দিকে বাসচাপায় রমিজ উদ্দিন ক্যান্টনমেন্ট কলেজের দুই শিক্ষার্থী নিহত হয়। এমন অনাকাঙ্ক্ষিত মৃত্যু আর পরিবহন ব্যবস্থায় অনিয়ম নিয়ে এখন শহরজুড়ে চলছে শিক্ষার্থীদের আন্দোলন।

আজ ঢাকার প্রায় প্রতিটি গুরুত্বপূর্ণ রাস্তা দখল করে রাখে শিক্ষার্থীরা। এত দিন তারকারা ফেসবুকে পোস্ট দিয়ে সমর্থন জানালেও আজ অনেকেই সশরীরে রাস্তায় নেমেছেন। শিক্ষার্থীদের কষ্ট দেখে সংগীতশিল্পী, অভিনয়শিল্পী, পরিচালক, প্রযোজকদের অনেকেই শুটিং বন্ধ করে রাস্তায় নেমে আসেন।

এদিকে জানা যায়, চলচ্চিত্র প্রযোজক আবদুল আজিজের মেয়ে নর্থ সাউথ বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী। গতকাল তার মেয়ের ক্লাস ছিল। দুপুরের পর মেয়ের খবর নিতে ফোন করে জানতে পারেন, কুড়িলে আন্দোলন করা শিক্ষার্থীদের সঙ্গে সেও রাস্তায় নেমেছে। মেয়েকে নিষেধ করেননি। সে আর তার বন্ধুরা যা ভালো মনে করছে, সেটাই করছে।

আন্দোলনে নিজের মেয়ে যুক্ত হওয়ায় নিজেকে গর্বিত বাবা মনে করছেন এই প্রযোজক। আবদুল আজিজ বলেন, ‘বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়া অবস্থায় বিভিন্ন আন্দোলন করেছি, আমার বাবা আমাকে কখনো নিষেধ করেননি। সরকারের কাছে আমার আবেদন, আমার মেয়ের যেন কিছু না হয়। পুলিশ বা অন্য কেউ যেন তাদের গায়ে হাত না দেয়।’

সরকারের কাছে আবেদন জানিয়ে আবদুল আজিজ বলেন, ‘এই প্রজন্ম বড় হচ্ছে বঙ্গবন্ধুকে বুকে নিয়ে। যাদের বুকে বঙ্গবন্ধু আছেন, তাদের কোনোভাবেই দাবায়ে রাখা যাবে না। তারা তাদের দাবি আদায় করেই ছাড়বে। মনে রাখতে হবে, এটা একেবারেই সাধারণ বাচ্চাদের আন্দোলন। এই আন্দোলন এখনো স্ফুলিঙ্গ আকারেই আছে। দেরি হলে হয়তো দাবানলের মতো ছড়িয়ে পড়তে পারে। তখন হয়তো নিয়ন্ত্রণে আনা কঠিন হবে। আমার মনে হয়, এই বিষয়ে প্রধানমন্ত্রীর দ্রুত হস্তক্ষেপ প্রয়োজন। তিনি ছাড়া এই সমস্যার সমাধান সম্ভব নয়।’

ব্রেকিংনিউজ/

x