‘ইংল্যান্ড বিশ্বকাপের সেরা অধিনায়ক মাশরাফি’

0 180

স্পোর্টস ডেস্ক: বাংলাদেশের অধিনায়ক মাশরাফি বিন মতুর্জাকে এবারের বিশ্বকাপের সেরা অধিনায়ক বলে দাবি করেছেন পাকিস্তানের সাবেক স্পিডস্টার শোয়েব আখতার। অসামান্য নেতৃত্বগুণে পুরো দলকে এক সুতোয় গেঁথে বাংলাদেশ ক্রিকেটকে নতুন উচ্চতায় নিয়ে গেছেন মাশরাফি বলেও জানিয়েছেন সাবেক এ তারকা।

পাকিস্তানের টিভি চ্যানেল পিটিভি স্পোর্টসের ‘গেম অন হায়’ নামের অনুষ্ঠানে প্যানেল আলোচনায় এ কথা বলেন শোয়েব। এ অনুষ্ঠানে আলোচক প্যানেলে আরো ছিলেন সাবেক পাকিস্তান অধিনায়ক রশিদ লতিফ ও সাবেক পেসার মোহাম্মদ ওয়াসিম।

অভিজ্ঞতা ও নেতৃত্বগুণ এ দুটো জায়গায় বাকিদের পেছনে ফেলেছেন মাশরাফি বলে অভিমত ব্যক্ত করেন ‘গেম অন হায়’ অনুষ্ঠানটির আলোচকরা। শোয়েবের ভাষায়, ‘আমার মতে, এবারের ইংল্যান্ড বিশ্বকাপে সেরা অধিনায়ক মাশরাফি।’ তবে বাংলাদেশকে সতর্কও করে তিনি বলেছেন, ‘বাংলাদেশের কোনোভাবেই উচ্চাভিলাষী হওয়া চলবে না। তবেই তারা বিশ্বকাপে ভালো করবে।’

শোয়েব আখতারের কথার সঙ্গে একমত পোষণ করেছেন রশিদ লতিফও। বাংলাদেশের প্রশংসা করতে গিয়ে সাবেক এ পাকিস্তান অধিনায়ক বলেন, ‘২০১৪ সাল থেকেই দারুণ ক্রিকেট খেলছে বাংলাদেশ। ওয়ানডে ক্রিকেটে দলটি ঘরের মাঠে পাকিস্তান, ভারত, দক্ষিণ আফ্রিকার মতো দলকে হারিয়েছে। ২০১৫ সালের বিশ্বকাপে তারা বিদায় করে দিয়েছিল ইংল্যান্ডকে।’

মোহাম্মদ ওয়াসিম বলেন, ‘হার-জিত খেলারই অংশ। তবে কয়েক বছর ধরেই অসাধারণ ক্রিকেট খেলছে বাংলাদেশ দল।’

এবার বিশ্বকাপটা বাংলাদেশ অধিনায়ক মাশরাফি বিন মুর্তজার জন্য চতুর্থ বিশ্বকাপ। তবে এটা তার পঞ্চম বিশ্বকাপও হতে পারতো। মাঝে বিতর্কিতভাবে তাকে বাদ দেওয়া হয়েছিলো ঘরের মাটির ২০১১ বিশ্বকাপে। ফলে একটা বিশ্বকাপ হারিয়ে গেছে তার ক্যারিয়ার থেকে। তারপরও এবার আসরের অন্যতম অভিজ্ঞ খেলোয়াড় এই মাশরাফি বিন মুর্তজা। ওয়েস্ট ইন্ডিজের ক্রিস গেইল ছাড়া একমাত্র তারই আছে ২০০৩ বিশ্বকাপেও খেলার অভিজ্ঞতা। এছাড়াও এ নিয়ে টানা দ্বিতীয়বারের মতো বাংলাদেশ দলকে নেতৃত্ব দিচ্ছেন মাশরাফি। বাকি নয় দলের সব অধিনায়কই এবারের আসরে নেতৃত্ব দিচ্ছেন প্রথমবারের মতো।

মাশরাফির বিশ্বকাপ অভিষেক হয় ২০০৩ সালে। সেবার অবশ্য ইনজুরির কারণে বিশ্বকাপের মাঝপথে দেশে ফিরে আসতে হয়েছিলো। এরপর ২০০৭ বিশ্বকাপ তো ছিলো স্বপ্নের মতো একটা আসর। সামনে থেকে নেতৃত্ব দিয়েছিলেন ভারতকে হারিয়ে দ্বিতীয় রাউন্ডে ওঠার পথে। ২০১১ বিশ্বকাপে সত্যিই দলের অধিনায়ক থাকার কথা ছিলো মাশরাফির। কিন্তু অনেকের হিসাবেই ফিট হয়ে ওঠা মাশরাফিকে কোনো এক অদ্ভুত কারণে দলে নেওয়া হয়নি। তবে এর প্রতিদান পেয়েছেন মাশরাফি।

২০১৫ সালে তার নেতৃত্বেই অস্ট্রেলিয়া ও নিউজিল্যান্ডে বিশ্বকাপ খেলতে গিয়েছিলো বাংলাদেশ। সেই আসরে ইংল্যান্ডকে হারিয়ে দিয়ে কোয়ার্টার ফাইনালে খেলেছিলো মাশরাফিবাহিনী।সূত্র: ব্রেকিংনিউজ/

Leave A Reply

Your email address will not be published.

x