ইউপি চেমারম্যানের বিরুদ্ধে তদন্ত প্রতিবেদন প্রেরণ

২১৯

রৌমারী(কুড়িগ্রাম) প্রতিনিধি: রৌমারী উপজেলার চরশৌলমারী ইউপি চেয়ারম্যান এ কে এইচ এম সাইদুর রহমান দুলালের বিরুদ্ধে ভিজিডি চাল বিতরণের ব্যাপক অনিয়ম ও দুর্নীতির অভিযোগে তদন্ত শুরু করে কর্তৃপক্ষ। অনিয়মের বিষয়ে বিভিন্ন পত্রপত্রিকায় সংবাদ প্রকাশের পর মহিলা বিষয়ক অধিদপ্তর মনোয়ারা ইশরাত পরিচালক (ভিজিডি) এর পক্ষ থেকে তদন্তের উদ্যোগ নেয়া হয়।

উল্লেখিত বিসয়ে পত্রে সাত কর্ম দিবসের মধ্যে সরেজমিনে তদন্ত পূর্বক প্রতিবেদন দাখিল করার জন্য রৌমারী উপজেলা নির্বাহী অফিসার আশরাফুল আলম রাসেলকে নির্দেশ দেন।

পত্রের আলোকে তদন্ত করার জন্য উপজেলা মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা নাজনীন আক্তারকে চিঠি দেন ইউএনও। নাজনীন আক্তার সরেজমিনে চরশৌলমারী ইউপিতে গিয়ে সুবিভোগীদের সাথে কথা বলে অভিযোগের বিষয়টি সত্যতা পান এবং তদন্তের প্রতিবেদন উপজেলা নির্বাহী অফিসারের নিকট দাখিল করেন।

উল্লেখ্য যে, কুড়িগ্রামের রৌমারী উপজেলার চরশৌলমারী ইউনিয়নে বিশ^ খাদ্য কর্মসূচী (ডাবলিউএফপি)র আওতায় ৩৬৫ জন দুস্থ মহিলাদের মাঝে প্রতিমাসে ৩০ কেজি করে চাল বরাদ্দ দেওয়া হয়। এতে ৩০ কেজি ওজনের প্রতিটি চালের বস্তা দেয়ার নিয়ম থাকলেও ওজনে কম দেয়া হয়। এছাড়া বিতরণ কালে একজন ট্যাক অফিসার থাকার কথা থাকলেও হাজির থাকেন না অফিসার। এমনকি প্রতি সুবিধাভোগীর বিপরিতে পরিবহন বাবদ চেয়ারম্যানের নিজস্ব লোকদিয়ে ১০০/ ৫০ টাকা আদায় করে থাকেন।

অথচ মহিলা বিষয়ক অধিদপ্তর পরিবহন বাবদ খরচ বহন করে থাকেন। এসব বিষয়ের অভিযোগের ধোয়া তোলে চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে একাধিক দৈনিক জাতীয়, স্থানীয় পত্রপত্রিকায় ঢালাও ভাবে সংবাদ প্রকাশ হলে উর্দ্ধোতন কর্তৃপক্ষ নরেচড়ে বসে। এক পর্যায়ে মহিলা বিষয়ক অধিদপ্তরের পরিচালক ভিজিডি মনোয়ারা ইশরাত বিষয়টি খতিয়ে দেখিয়ে তদন্ত পূর্বক প্রতিবেদন দাখিল করার জন্য পত্র জারি করেন।

উপজেলা মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা নাজনীন আকতার ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে সাংবাদিকদের জানান, ট্যাক অফিসার ছাড়া, ভিজিডির চাল বিতরণ, ওজনে কম, সুবিধাভোগীদের প্রতিজনের নিকট পরিবহন বাবদ ১০০ টাকা আদায় এবং শুক্রবার বন্ধেরদিনে ভিজিডির চাল বিতরণ করতে ছিলেন চেয়ারম্যান ও তার লোকজন। এসব বিষয়ে তদন্ত প্রতিবেদন উপজেলা নির্বাহী অফিসার বরাবরে প্রদান করা হয়েছে।

এব্যাপারে ভারপ্রাপ্ত রৌমারী উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও সহকারী কমিশনার (ভূমি) আশরাফুল আলম রাসেল বলেন, বিষয়টি তদন্ত প্রতিবেদন পাওয়ার পর প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহনের জন্য পরিচালক (ভিজিডি)র ঢাকা বরাবরে প্রেরণ করা হয়েছে।

Comments are closed.