ঈদ উপলক্ষে শক্তি ফাউন্ডেশনের আয়োজন “এক লক্ষ আহার, এক লক্ষ হাসি”

0 55

প্রতি বছর ত্যাগের মহিমায় উদ্দীপ্ত হয়ে দেশের মানুষ একত্রে ঈদ-উল-আযহা পালন করে থাকেন ও একে অপরের সঙ্গে আনন্দ ভাগাভাগি করে নেন। এ বছর করোনা ভাইরাস এবং বন্যার  প্রাদূর্ভাবের কারণে এই ত্যাগের প্রয়োজনীয়তা হয়ে উঠেছে আরো অর্থবহ।

আর তাই শক্তি ফাউন্ডেশনের কর্মীদের ঈদের বোনাসের একটি অংশ,  শক্তি ফাউন্ডেশনের নিজস্ব তহবিলসহ বিভিন্ন মহৎ ব্যক্তির অনুদানের সমন্বয়ে গড়ে ওঠা তহবিল দিয়ে এ ঈদে খাওয়ানো হয় এক লক্ষ ক্ষুধার্ত মানুষকে।

শক্তির কর্মীবাহিনীর মানুষের পাশে দাঁড়াবার এবং মানুষকে সহায়তা করার যে দৃঢ় ইচ্ছা, তা থেকে অনুপ্রাণিত হয়ে ঈদুল আযহা উপলক্ষে শক্তি ফাউন্ডেশন গ্রহণ করে এই মহৎ উদ্যোগ “এক লক্ষ আহার, এক লক্ষ হাসি” । তাদের এ উদ্যোগে প্রচার সহযোগিতায় ছিলো রবি টেলিকম।

গত ৩রা আগস্ট, ২০২০ তারিখে সারা দেশজুড়ে শক্তি ফাউন্ডেশনের ৩৯৬ টি শাখার কর্ম এলাকায় অবস্থিত বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে বিশেষ করে এতিমখানা, প্রতিবন্ধী শিশুদের আশ্রম, বৃদ্ধাশ্রম এবং অসহায় নারীদের আশ্রমে খাবার পৌছে দেয়া হয়েছে ।

 

এছাড়াও চলমান বন্যা পরিস্থিতিতে ক্ষতিগ্রস্থ টাঙ্গাইল, গাজীপুর, জামালপুর, গোপালগঞ্জ, মুন্সিগঞ্জ, পাবনা, সিলেট, সুনামগঞ্জসহ শক্তির বিভিন্ন শাখা অফিসের কর্ম এলাকায় বন্যা দুর্গত মানুষের মাঝে বিশেষভাবে এই কর্মসূচি পালন করা হয়। বন্যাদুর্গত এলাকায় বিভিন্ন আশ্রয়কেন্দ্রে ও বাঁধের উপরে আশ্রয় নেয়া অসহায় মানুষের মাঝে খাবার বিতরণ করা হয়। বাদ পড়েননি এলাকার অতি দরিদ্র ও করোনার কারণে উপার্জনহীন হয়ে পড়া মানুষও।

 

কোরবানির প্রকৃত তাৎপর্য মনে রেখে এবং সবাই মিলে মানুষের জন্য কিছু করার ইচ্ছা থেকে শক্তি ফাউন্ডেশন তাদের এ  উদ্যোগে সম্পৃক্ত করেছে দেশ ও বিদেশে থাকা অংশগ্রহণে ইচ্ছুক সকলকে। সকলের স্বতঃস্ফুর্ত সাড়া এবং কঠোর পরিশ্রমে এক লক্ষ মানুষের মুখে এক বেলার আহার তুলে দেয়ার এ উদ্যোগ সফল ভাবে পালন করতে পেরে শক্তি ফাউন্ডেশন সকলের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করে এবং ভবিষ্যতে আরও বড় আঙ্গিকে অনুরূপ প্রকল্প বাস্তবায়ন করার আশা প্রকাশ করে।

Leave A Reply

Your email address will not be published.