করোনার সংক্রমণ ঠেকাতে দু-একদিনেই আসছে নির্দেশনা : স্বাস্থ্যমন্ত্রী

9
মানিকগঞ্জের গড়পাড়ায় শনিবার শীতবস্ত্র বিতরণ অনুষ্ঠানে বক্তব্য দেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক। ছবি : সংগৃহীত

করোনাভাইরাসের সংক্রমণ ঠেকাতে দুই-একদিনের মধ্যেই নির্দেশনা আসছে। স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের জাতীয় কারিগরি কমিটির নির্দেশনা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা অনুমোদনের অপেক্ষায় আছে। শিগগিরই জেলা পর্যায়ে এ সব নির্দেশনা পাঠানো ও কার্যকরে ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে। আজ শনিবার মানিকগঞ্জের গড়পাড়ায় দুস্থদের মধ্যে শীতবস্ত্র বিতরণ অনুষ্ঠানে স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক এসব তথ্য জানিয়েছেন।

স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, ‘কয়েকদিন আগেও আমরা দেখেছি, প্রতিদিন ২৫০ থেকে ৩০০ জন ব্যক্তির করোনা শনাক্ত হচ্ছে। গত দুদিনে আমরা দেখেছি, প্রায় এক হাজার ১০০ জন ব্যক্তির করোনা শনাক্ত হয়েছে। শনাক্ত চারগুণ বেড়ে গেছে।’

শনাক্তের ঊর্ধ্বগতি আশঙ্কাজনক মন্তব্য করে তিনি বলেন, ‘এভাবে বাড়তে থাকলে রোগীর সংখ্যাও বাড়বে। এর ফলে হাসপাতালে শয্যার সংখ্যা ধীরে ধীরে কমতে থাকবে। চিকিৎসা ব্যবস্থাতেও সমস্যার সৃষ্টি হবে। সেজন্য আমাদের আগে থেকেই সজাগ থাকতে হবে।’

জাহিদ মালেক আরও বলেন, ‘স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের জাতীয় কারিগরি কমিটির নির্দেশনা আমাদের মেনে চলতে হবে। এই নির্দেশনাগুলো মাননীয় প্রধানমন্ত্রী অনুমোদন করছেন। সব জেলা পর্যায়ে এ নির্দেশনাগুলো দুই-একদিনের মধ্যে চলে আসবে এবং কার্যকর হয়ে যাবে।’

সাংবাদিকদের উদ্দেশে জাহিদ মালেক বলেন, ‘আমাদের সাংবাদিক ভাইয়েরা আছেন, তাঁরাও এ বিষয়গুলো দেখবেন, ঠিকমতো প্রচার করবেন। সরকারের যেসব নির্দেশনা আছে, সে নির্দেশনাগুলো পালন করা হচ্ছে কিনা, এ বিষয়গুলো আপনাদের দেখার দায়িত্ব। এ নির্দেশনাগুলো মেনে চলা জনগণেরও দায়িত্ব।’

সংক্রমণ বাড়লে স্কুল-কলেজ খোলা থাকবে কিনা— এ প্রসঙ্গে স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, ‘এখন ছেলে-মেয়েরা আপাতত স্কুলে যাবে। সংক্রমণ আশঙ্কাজনক যদি অবস্থায় চলে যায়, তখন এ ব্যাপারে সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে। যদি হুমকিস্বরূপ হয়ে যায়, তাহলে অবশ্যই বন্ধ করার প্রয়োজন দেখা দেবে। এখনও সে পর্যায়ে আমরা যাইনি।

এখন স্কুল-কলেজসহ অন্যান্য শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান স্বাভাবিকভাবে চলবে উল্লেখ করে তিনি বলেন, ‘মাস্ক পরতে হবে, স্বাস্থ্যবিধি মেনে কাজ করতে হবে।’ এ সময় সবাইকে টিকা নেওয়ার আহ্বান জানান স্বাস্থ্যমন্ত্রী।

x