করোনায় শিক্ষার্থী ঝরে পড়ার হার খুব বেশি হবে না : শিক্ষামন্ত্রী

23
আজ শনিবার চাঁদপুর শিল্পকলা একাডেমি মিলনায়তনে কমিউনিটি পুলিশিং ডে উপলক্ষে আয়োজিত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্য দেন শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি। ছবি : ফাইল ছবি

শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি বলেছেন, করোনা মহামারিতে কত শিক্ষার্থী ঝরে পড়েছে তা নিশ্চিত করে বলা যাচ্ছে না। তবে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলোতে ৯০ শতাংশের বেশি শিক্ষার্থীর অ্যাসাইনমেন্ট জমা দিচ্ছে। এতে বুঝা যাচ্ছে, করোনায় শিক্ষার্থী ঝরে পড়ার হার খুব বেশি হবে না।

আজ শনিবার চাঁদপুর শিল্পকলা একাডেমি মিলনায়তনে কমিউনিটি পুলিশিং ডে উপলক্ষে আয়োজিত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন শিক্ষামন্ত্রী।

চাঁদপুরের পুলিশ সুপার মিলন মাহমুদের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য দেন ভারপ্রাপ্ত জেলা প্রশাসক দাউদ হোসেন চৌধুরী, জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি নাছির উদ্দিন আহমেদ, সাধারণ সম্পাদক আবু নঈম পাটওয়ারী দুলাল, জেলা কমিউনিটি পুলিশিংয়ের সাধারণ সম্পাদক সুফি খাইরুল আলম খোকন প্রমুখ।

শিক্ষামন্ত্রী বলেন, ‘যাদের আর্থিক সমস্যা রয়েছে, তারা ছেলেমেয়েদের কাজে লাগিয়ে দিয়েছেন। মেয়েদের কারও কারও বাল্যবিয়ে হয়ে গেছে বলেও শোনা যাচ্ছে। তারপরও সেই মেয়েরা যেখানেই থাকুক তারা যেন স্কুলে আসে। তাদের পড়াশোনার সুযোগ তৈরি করে দিতে শিক্ষকদের বিশেষভাবে নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে।’

শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের বর্তমান অবস্থা তুলে ধরে ডা. দীপু মনি বলেন, ‘করোনা পরিস্থিতি ধীরে ধীরে স্বাভাবিক হয়ে আসছে। ফলে বিশেষজ্ঞদের মতামত নিয়েই আমরা শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলে দিয়েছি। এখনো অনেক বাবা-মা সন্তানদের স্কুলে পাঠানো নিয়ে ভাবছেন। এতে শিক্ষার্থীদের উপস্থিতির হার এখনও শতভাগ নয়। পরিস্থিতি আরও উন্নতি হচ্ছে। সন্তানরা স্কুলে গেলে সংক্রমণের কোনও আশঙ্কা নেই- এটা নিশ্চিত হলে অভিভাবকরা সন্তানদের বিদ্যালয়ে পাঠাবেন। শিক্ষকরাও খোঁজ-খবর নিচ্ছেন, কেন বাচ্চারা স্কুলে আসছে না।’

x