ক্রিমিয়ায় রুশ ক্ষেপণাস্ত্র মোতায়েনের নিন্দা ইউক্রেনের

170

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: দখলকৃত ক্রিমিয়া উপদ্বীপে শিগগিরই রুশ ক্ষেপণাস্ত্র মোতায়েনের ঘোষণার নিন্দা জানিয়েছে ইউক্রেন।

ইউক্রেনের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের রাজনৈতিক পরিচালক ওলেক্সি মাকেয়েভ কাতারভিত্তিক সংবাদমাধ্যম আল জাজিরা’কে বলেছেন, রাশিয়ার এ সিদ্ধান্ত শুধু ইউক্রেনের জন্যই বিপজ্জনক নয়, বরং এটি পুরো কৃষ্ণ সাগর অঞ্চলের জন্যই বিপজ্জনক।

দুই দেশের উত্তেজনার মধ্যেই বুধবার (২৮ নভেম্বর) ক্রিমিয়া দ্বীপে ভূমি থেকে আকাশে নিক্ষেপযোগ্য এস-৪০০ ক্ষেপণাস্ত্র মোতায়েনের ঘোষণা দেয় রুশ প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়।

চলতি বছর শেষ হওয়ার আগেই এ সিদ্ধান্ত কার্যকর করা হবে জানিয়ে রাশিয়ার দক্ষিণাঞ্চলীয় সামরিক বিভাগের মুখপাত্র কর্নেল ভাদিম আস্তাফইয়েভ বলেন, রাশিয়ার আকাশসীমা রক্ষার জন্য নিকট ভবিষ্যতে নতুন এ ব্যবস্থাকে মোতায়েন করা হবে এবং আগের আকাশ প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা সরিয়ে নেয়া হবে।

তবে ঠিক কোন জায়গায় এসব ক্ষেপণাস্ত্র প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা মোতায়েন করা হবে তা তিনি বলেন নি। স্থায়ীভাবে ক্ষেপণাস্ত্র প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা মোতায়েনের জন্য এরইমধ্যে ট্রেনে করে সমস্ত উপাদান নেয়া শুরু হয়েছে। আগে থেকেই ক্রিমিয়ায় তিনটি পূর্ণাঙ্গ এস-৪০০ ক্ষেপণাস্ত্র প্রতিরক্ষা ব্যটালিয়ন মোতায়েন করা রয়েছে।

এদিকে, ন্যাটোর কাছে সহায়তা চেয়েছেন ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট পেত্রো পোরোশেংকো। নিরাপত্তায় আজোভ সাগরে ন্যাটোর জাহাজ পাঠানোর অনুরোধ জানান তিনি।

রবিবার (২৫ নভেম্বর) কের্চ প্রনালীতে ইউক্রেনের ৩টি সামরিক জাহাজে গুলি চালায় রাশিয়া। পরে জাহাজ ও এর নাবিকসহ ২৪ ক্রুকে জব্দ করে মস্কো। এ ঘটনার জেরে ইউক্রেনে জারি করা হয় ৩০ দিনের সামরিক শাসন।

বিডি সংবাদ টোয়েন্টিফোর ডটকম/

x