গ্রাফিক আর্টস ইন্সটিটিউটের ৫০ বছর পূর্তি

923

মো: জাহাঙ্গীর আলম ঢাকা :
বাংলাদেশের দেশের একমাত্র স্বনামধণ্য প্রিন্টিং-প্যাকেজিং ও গ্রাফিক ডিজাইন প্রকৌশল বিষয়ক সরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান গ্রাফিক আর্টস ইন্সটিটিউটের পঞ্চাশ বছর পূর্তি অনুষ্ঠান উদযাপন করা হয়েছে। এ উপলক্ষে আসাদুল হক খোকনের সম্পাদনায় প্রায়আট শতাধিক প্রাক্তন শিক্ষার্থীর নাম-ঠিকানা ও ছবিসহ একটি সুদৃশ্য স্মরণিকা প্রকাশ করা হয়। উদযাপনের মূল শ্লোগান ছিল ‘অ্যা টেল অব টেকনোলজি’। গত শুক্রবার (৯ মার্চ) রাজধানীর মোহাম্মদপুর সাতমসজিদ রোডে অবস্থিত শিক্ষা প্রতিষ্ঠানটির ৫০ বছর পূর্তি অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। অনুষ্ঠানটি যৌথভাবে আয়োজন করে ইন্সটিটিউট কর্তৃপক্ষ ও
গ্রাফিক আর্টস অ্যালমনাই অ্যাসোসিয়েশন। শিক্ষমন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ অনুষ্ঠানে
প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন। ইন্সটিটিউটের অধ্যক্ষ প্রকৌশলী নীহার রঞ্জন দাসের
সভাপতিত্বে এতে বক্তব্য দেন- স্থানীয় সংসদ সদস্য ও শিক্ষা মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয়
স্থায়ী কমিটির সদস্য অ্যাডভোকেট জাহাঙ্গীর কবির নানক। এছাড়া কারিগরি ও মাদরাসা
শিক্ষা বিভাগের সচিব মো. আলমগীর, কারিগরি শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যান মো. মোস্তাফিজুর রহমান, বিজিএমইএ এর সাবেক সভাপতি আতিকুল ইসলাম, স্থানীয় ওয়ার্ড কাউন্সিলর
তারেকুজ্জামান রাজিব বক্তব্য দেন। বর্তমান সরকার কারিগরি শিক্ষাকে সবচেয়ে বেশি প্রধান্য
দিচ্ছে জানিয়ে শিক্ষামন্ত্রী বলেন, ‘কারিগরি শিক্ষায় দক্ষ না হলে দেশ এগোবে না। এজন্য
কারিগরি শিক্ষার মানউন্নয়ন করার জন্য ঐতিহ্যবাহী গ্রাফিক আর্টস ইন্সটিটিউটের
কার্যক্রম সুষ্ঠুভাবে সম্পন্ন করতে ১০তলা ভবন এবং মেয়েদের জন্য স্বতন্ত্র আবাসিক ভবন করে
দেয়া হবে।’ তিনি বলেন, ‘গ্রাফিক আর্টসে বিএসসি ডিগ্রি করার জন্য ঢাকা প্রকৌশল ও
প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে প্রাথমিক কার্যক্রম শুরু হয়েছে। শিগগিরই এই সিদ্ধান্ত চূড়ান্ত
করা হবে।’ সৈয়দ মো. বকতিয়ার এবং হাসান মহিবুর রেজা রুবেলের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে
শুভেচ্ছা বক্তব্য দেন উদযাপন কমিটির আহ্বায়ক মোল্লা মো: গোলাম মোস্তাফা ও স্বাগত
বক্তব্য দেন সদস্য সচিব মো: সাঈফ শাহরিয়ার জাহেদী। পরে জব ফেয়ার ও কর্মসংস্থান বিষয়ক
আলোচনা অনুষ্ঠিত হয়। এতে ৫টি প্রতিষ্ঠানে ৩৫ জন শিক্ষার্থীদের নিয়োগপত্র প্রদান করা হয়।
বিকেলে অনুষ্ঠিত হয় স্মৃতিচারণ, র‌্যাফেল ড্র, পুরস্কার বিতরণী ও মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক
অনুষ্ঠান

x