চাটমোহরে সন্তান প্রতিবন্ধী হওয়ায় স্ত্রীকে তালাক, দিশেহারা স্ত্রী দুলালী

0 118

আফতাব হোসেন, চাটমোহর (পাবনা) প্রতিনিধি: পাবনার চাটমোহরে সন্তান প্রতিবন্ধী হওয়ায় স্ত্রীকে তালাক দিয়েছেন স্বামী। এতে স্ত্রী দিশেহারা হয়ে পড়েছেন। ৫ বছর আগে চাটমোহর উপজেলার ডিবিগ্রাম ইউনিয়নের কাটাখালী গ্রামের মৃত আবুল হোসেনের মেয়ে দুলালীর সঙ্গে বিয়ে হয় একই গ্রামের মোঃ রব্বান হেসেনের ছেলে আলামিন হোসেনের। বিয়ের ২ বছর পর তাদের সংসারে জন্ম হয় এক ছেলে সন্তানের কিন্তু বাধ সাধে ছেলেটি প্রতিবন্দী।

 

সন্তান জন্ম দেবার পর থেকেই দুলালীর কপালে নেমে আসে দূর্যোগের ঘনঘটা। প্রতিবন্ধী ছেলে জন্মের পর থেকেই দুলালীর স্বামী, শশুর, শাশুরী তাকে বাড়ি থেকে বেড় করে দেয়। দুলালীর ঠাঁই হয় দরিদ্র মানুষের বাড়ি ঝিয়ের কাজ করে খাওয়া বিধবা মা খইচন বেওয়ার ঘরে। দুলালী সে সময় স্থানীয় ইউপি মেম্বর ও চেয়ারম্যানদের কাছে নালিশ করেও অজ্ঞাত কারণে কোন প্রতিকার পাননি। বিয়ের সময়কার বেঁধে দেয়া দেনমোহরের টাকা পরিশোধ না করেই স্বামী আলামিন হোসেন গত ৫ জুলাই চাটমোহর পৌর কাজী মোঃ আব্দুর রাজ্জাকের কাজী অফিসে এসে তালাক দিয়ে সেই তালাক নামা নিজের কাছে গোপন রাখে।

 

অতি সম্প্রতি ডাকযোগে দুলালী তালাকনামা পেয়ে স্বামীর সংসারে ফিরে যেতে দ্বারে দ্বারে ঘুরলেও কোন প্রতিকার পাচ্ছেন না। এ ব্যাপারে ইউপি চেয়ারম্যান মোঃ নবীর উদ্দিন মোল্লা ফোন রিসিভ না করায় বক্তব্য নেয়া যায়নি।

 

চাটমোহর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সৈকত ইসলাম জানান স্বামী বা স্ত্রী যে কেউ তালাক দিতে পারে, প্রতিবন্ধী সন্তান জন্ম দেবার কারণে যদি এমন ঘটনা হয় তবে বিষয়টি অমনবিক। এ ব্যাপারে ইউপি চেয়ারম্যানের সাথে কথা বলে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

Leave A Reply

Your email address will not be published.