তানোরে গাছ কাটতে নিধেষ করায় গৃহবধুর দুই কান ছিড়ে ফেলেছে প্রতিপক্ষরা

0 62

তানোর প্রতিনিধি :  তানোরে গাছ কাটে নিষেধ করায় গৃহবধুর দুই কান ছিড়ে ফেলেছে প্রতিপক্ষরা। এসময় স্ত্রীকে বাচাতে গিয়ে মারপিটে গুরুতর আহত হয়েছেন ওই গৃহবধুর স্বামী। আহত অবস্থায় স্বামী-স্ত্রী দুজনকে তানোর উপজেলা স্বাস্থ্য কেন্দ্রে ভর্তি করা হয়েছে। 

এলাকাবাসী ও হাসপাতাল সুত্রে জানা গেছে, তানোর পৌর এলাকার গোকুর মথুরা গ্রামের ইনছান আলীর সাথে জমিজমা নিয়ে দীর্ঘদিন ধরে একই গ্রামের ইউসুফ আলীর দ্বন্দ চলে আসছিলো। এর জের ধরে শুক্রবার বিকালে ইনছান আলী (৪৫)’রসহ তার বেলাল উদ্দিন  (২২) দ্বন্দ চলে আসা জমির উপরের একটি আম গাছ কাটছিলো। এসময় ইউসুফ আলীর স্ত্রী মাসুদা বিবি তাদেরকে গাছ কাটতে নিষেধ করেন।

এনিয়ে উভয়েল মধ্যে কথা কাটাকাটির এক পর্যায়ে ইনছান আলী তার ছেলেসহ পরিবারের লোকজন মাসুদার উপর হামলা চালিয়ে বেধড়ক ভাবে মারপিট করে এবং মাসুদার দুই কানের সোনার রিং ধরে টান দিয়ে কান ছিড়ে ফেলে রক্তাক্ত জখম করে। খবর পেয়ে মাসুদা (৩২)’র স্বামী ইউসুফ আলী (৪০) তার স্ত্রীকে বাচানোর জন্য এগিয়ে আসলে তাকেও বেধড়ক ভাবে মারপিট করে শরীরের বিভিন্ন স্থানে রক্তাক্ত ছিলা কালশিরা ও ফোলা জখম করে।

পরে গ্রামবাসী এগিয়ে এসে স্বামী স্ত্রী দুজনকেই গুরুতর রক্তাক্ত জখম অবস্থায় উদ্ধার করে তানোর উপজেলা স্বাস্থ্য কেন্দ্রে ভর্তি করেন। এঘটনায় পতিপক্ষ প্রভাবশালীদের হুমকির ভয়ে থানায় অভিযোগ করতে সাহস পচ্ছেন না ওই দম্পতি। বর্তমারে তারা তানোর উপজেলা স্বাস্থ্য কেন্দ্রে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

এনিয়ে যোগাযোগ করা হলে গোকুল গ্রামের ইনছান আলীর ছেলে বেলাল উদ্দিন বলেন, এই গাছটি আমাদের লাগানো, এই জমি নিয়ে দীর্ঘদিন ধরে দ্বন্দ চলছে। তিনি বলেন, আমাদের লাগানো গাছ আমরা কাটছি বাধা দিয়ে গালাগালি করছিলো, তাই উত্তম মাধ্যম দেয়া হয়েছে।

এব্যাপারে তানোর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) রাকিবুল হাসান বলেন, এবিষয়ে কেউ অভিযোগ দেয়নি। তিনি বলেন, ভয়ের কোর কারন নেই, অভিযোগ দিলে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

Leave A Reply

Your email address will not be published.