তামিল নাড়ুতে বন্যায় পাঁচজনের মৃত্যু

১৫১
ভারতে এক মাসের ব্যবধানে আবারও ভারি বৃষ্টির কারণে বন্যা দেখা দিয়েছে। বন্যার পানিতে তামিল নাড়ু রাজ্যে নাজুক পরিস্থিতি তৈরি হয়েছে। ছবি : সংগৃহীত

ভারতে এক মাসের ব্যবধানে আবারও ভারি বৃষ্টির কারণে বন্যা দেখা দিয়েছে। বন্যার পানিতে তামিল নাড়ু রাজ্যে নাজুক পরিস্থিতি তৈরি হয়েছে। বন্যাজনিত কারণে রাজ্যটিতে এ পর্যন্ত পাঁচজনের মৃত্যুর খবর পাওয়া গেছে।

রাজ্য কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, স্থানীয় সময় গতকাল সোমবার পর্যন্ত কয়েকদিনের ভারি বর্ষণে চেন্নাইসহ বেশ কয়েকটি শহরে ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। বন্যার কারণে মৃত্যু হয়েছে পাঁচজনের। ৬০টির মতো বাড়ি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। প্রায় দেড় হাজার মানুষকে বন্যাকবলিত এলাকা থেকে অন্যত্র সরিয়ে নেওয়া হয়েছে। এখনও কাজ করছেন উদ্ধারকারী টিমের সদস্যরা।

শনিবার সকাল থেকেই ভারি এবং অতিভারি বৃষ্টিপাত হচ্ছে তামিল নাড়ুর ৩৬টি জেলায়। দেশটির আবহাওয়াবিদরা জানিয়েছেন, গত ছয় বছরে এ রকম বৃষ্টিপাত হয়নি রাজ্যটিতে। খবর টাইমস অব ইন্ডিয়ার।

তামিল নাড়ুতে শনিবার যে পরিমাণ বৃষ্টিপাত রেকর্ড হয়েছে, তা ২০১৫ সালের বন্যা পরবর্তী সর্বোচ্চ বৃষ্টিপাতের রেকর্ড বলে জানা গেছে। বৃষ্টিপাতের কারণ হিসেবে বঙ্গোপসাগরে তৈরি হওয়া নিম্নচাপকে দায়ী করছেন আবহাওয়া সংশ্লিষ্টরা।

এদিকে, বৃষ্টিপাতের কারণে চেন্নাইয়ের বন্যা বিধ্বস্ত অঞ্চলে সোমবার পরিদর্শনে যান তামিল নাড়ুর মুখ্যমন্ত্রী এমকে স্ট্যালিন। ত্রাণ সহায়তা জোরদার করার পাশাপাশি কেন্দ্রের সহযোগিতাও চেয়েছেন তিনি।

দেশটির আবহাওয়া অফিসের পূর্বাভাস বলছে, মঙ্গলবারও চেন্নাইসহ তামিলনাড়ুর বিভিন্ন এলাকা ও পার্শ্ববর্তী পদুচেরির বিভিন্ন এলাকায় ভারি থেকে অতিভারি বৃষ্টিপাত হতে পারে। ফলে বন্যা পরিস্থিতির আরও অবনতি ঘটতে পারে বলে শঙ্কা করা হচ্ছে।

Comments are closed.