‘দরকার হলে ওপেন করবেন সাকিব-মিঠুন’

48

অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে বাংলাদেশের দুই নিয়মিত ওপেনার তামিম ইকবাল ও লিটন দাস—দুজনের কেউই নেই। চোট ও পারিবারিক কারণে ছিটকে গেছেন তাঁরা। তাই ১৭ জনের দলে মাত্র দুজন আছেন ওপেনিং ব্যাটসম্যান। ওপেনিংয়ে তাই ভরসা মোহাম্মদ নাঈম ও সৌম্য সরকারের ওপরই। কিন্তু, কোনোভাবে যদি তাঁদের চোট সমস্যা তৈরি হয়, তার জন্য বিকল্প ভেবে রেখেছে টিম ম্যানেজমেন্ট।

যদি নাঈম-সৌম্যকে নিয়ে সমস্যা তৈরি হয়, তাহলে প্রয়োজনে ওপেন করবেন সাকিব আল হাসান। তাঁর সঙ্গে ভাবনায় আছেন মোহাম্মদ মিঠুন। আজ রোববার ভার্চুয়াল সংবাদ সম্মেলনে এমনটাই জানালেন বাংলাদেশ দলের প্রধান কোচ রাসেল ডমিঙ্গো।

আজ অনুশীলনের ফাঁকে রাসেল ডমিঙ্গো বলেন, ‘আমরা এটা নিয়ে অনেক ভেবেছি। সাকিব আছে, সে ওপেনিংয়ে উঠে আসতে পারে। মোহাম্মদ মিঠুন দলে ফিরে এসেছে। যদিও সে মিডল অর্ডার ব্যাটসম্যান, এই সংস্করণে প্রয়োজনে সে ওপেন করতে পারে, যদি কোনো ওপেনার চোট পায়। আশা করি, ওপেনারদের কিছু হবে না। তবে কিছু হয়ে গেলে, আমাদের বিকল্প ভাবনা আছে।’

একদিন বাদে ঘরের মাঠে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে টি-টোয়েন্টি সিরিজ শুরু করবে বাংলাদেশ। জিম্বাবুয়ে সফর থেকে ফিরে গত তিন দিন রুম কোয়ারেন্টিন শেষে আজ রোববার থেকে মাঠের অনুশীলন শুরু করেছে মাহমুদউল্লাহর দল। বিকেল ৪টা থেকে অনুশীলন শুরু করবেন অস্ট্রেলিয়ার ক্রিকেটারেরা। পাঁচ ম্যাচের সিরিজকে সামনে রেখে আজ রোববার ও আগামীকাল সোমবার চলবে দুদলের অনুশীলন। ৩ আগস্ট থেকে শুরু হবে বাংলাদেশ ও অস্ট্রেলিয়ার ব্যাটে-বলের লড়াই।

আজ সকাল ১০টায় মিরপুর শেরে বাংলায় মাহমুদউল্লাহর নেতৃত্বে ১৭ জনের স্কোয়াড নিয়ে অনুশীলন শুরু করেছে স্বাগতিকেরা। অনুশীলনের আগে করোনা টেস্টে নেগেটিভ এসেছেন ক্রিকেটার ও দুদলের সাপোর্ট স্টাফরা। তাই আগের সময় অনুযায়ী সব ঠিকঠাক হচ্ছে।

গতকাল শনিবার টি-টোয়েন্টি সিরিজ শুরুর সময় জানিয়েছে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)। ম্যাচগুলো শুরু হবে বাংলাদেশ সময় সন্ধ্যা ৬টায়। সবগুলো ম্যাচ অনুষ্ঠিত হবে মিরপুর শেরেবাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে।

এর আগে ম্যাচের দিনক্ষণ জানিয়েছিল বিসিবি। অস্ট্রেলিয়া সিরিজের প্রথম ম্যাচ আগামী ৩ আগস্ট। দ্বিতীয় ম্যাচটি হবে পরদিনই। পরের তিন ম্যাচ হবে যথাক্রমে ৬, ৭ ও ৯ আগস্ট।

x