দুর্গাপুরে প্রধান শিক্ষককে লাঞ্ছিত করার প্রতিবাদে শিক্ষক ও শিক্ষার্থীদের মানববন্ধন

১৬৭

দুর্গাপুর প্রতিনিধি: রাজশাহীর দুর্গাপুর উপজেলার গোপালপুর উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আজাদ আলী কে লাঞ্চিত করার ঘটনার প্রতিবাদের মানববন্ধন করেছে শিক্ষক ও শিক্ষার্থীরা। শনিবার বেলা ১২টায় স্কুল সংল্গ মোহনগঞ্জ-তাহেরপুর প্রধান সড়কে এই মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়। মানববন্ধনে দোষীদের বিরুদ্ধে শাস্তি দাবি করেন শিক্ষক ও শিক্ষার্থীরা। এছাড়াও ওই মানববন্ধনে অংশ নেন শিক্ষার্থী অভিভাবক,সাধারণ জনগন ও পরিচালনা পর্ষদের সদস্যরা।

মানববন্ধনে বক্তব্যে লাঞ্ছিত প্রধান শিক্ষক আজাদ আলী বলেন,গত ৩১ মার্চ বৃহস্পতিবার রাত সাড়ে ৮ টার দিকে প্রধান শিক্ষক আজাদ আলী গোপালপুর বাজারে ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি সাইফুল এর সাথে চা বিস্কুট খেয়ে বাড়ি ফিরছিলেন।

এমন সময় স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান শফিকুল আলম এর নির্দেশে ম্যানেজিং কমিটি গঠন সংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে ওই এলাকার আছের আলী নামের এক ব্যাক্তি প্রধান শিক্ষক আজাদ আলীর মোটর সাইকেলের গতিরোধ করে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ ও লাঞ্ছিত করেন। সেই সাথে প্রাণনাশের হুমকি প্রদান করেন। এসময় স্থানীয় প্রতিবেশীরা এগিয়ে আসলে আছের আলী ঘটনাস্থল থেকে পালিয়ে যান।

এ ঘটনায় প্রধান শিক্ষক জীবনের নিরাপত্তা চেয়ে উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তার পরামর্শে দুর্গাপুর থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি করেছেন। মানববন্ধনে উপস্থিত বক্তারা সংশ্লিষ্ট প্রশাসনের নিকট প্রধান শিক্ষককে জীবননাশের হুমকি দাতা আছের আলী ওরফে কানকাটা আছেরের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তিসহ প্রধান শিক্ষকের নিরাপত্তা দাবি জানিয়েছেন।

বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির সভাপতি ও ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি সাইফুল ইসলাম বলেন, রাজনৈতিকভাবে প্রতিহিংসার জন্য গোপালপুর এলাকার কানকাটা আছের তার কিছু সাঙ্গপাঙ্গ মিলে ১লা জানুয়ারিতে শিক্ষার্থীদের মাঝে নতুনবই বিতরণ, ২১ ফেব্রুয়ারি মাতৃভাষা দিবস ও ২৬ শে মার্চ স্বাধীনতা দিবসে বাঁধা সৃষ্টি করে দিবস পালন করতে দেননি।

এ ব্যাপারে দুর্গাপুর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) হাসমত আলী বলেন, গোপালপুর উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষককে হুমকি দেয়ার ঘটনায় দুর্গাপুর থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি হয়েছে এ বিষয়ে তদন্ত সাপেক্ষে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

Comments are closed.