দেশে নারী-শিশু নির্যাতন বন্ধের দাবি

0 247

বিডি সংবাদ টোয়েন্টিফোর ডটকম : সারাদেশে নারী ও শিশু নির্যাতন-ধর্ষণ-হত্যা বন্ধের দাবি জানিয়েছে সমাজতান্ত্রিক মহিলা ফোরাম।একই সঙ্গে কোটা সংস্কার আন্দোলনে বর্বর হামলা ও ছাত্রী নিপীড়নেরও বিচার দাবি করেছে সংগঠনটি।

শুক্রবার (১৩ জুলাই) জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে আয়োজিত এক মানববন্ধনে এ দাবি জানানো হয়।

মানববন্ধনে বক্তারা বলেন, চলতি বছরে জানুয়ারি থেকে জুন পর্যন্ত ৪২৭ জন নারী ধর্ষণের শিকার হয়েছেন। ধর্ষণের পর হত্যা করা হয়েছে ৩৭ জনকে, পারিবারিক নির্যাতনের শিকার ২০৮ জন, নির্যাতনের পর হত্যা করা হয়েছে ১৪৪ জনকে,নির্যাতনের শিকার ৮৫৬ জন শিশু এবং নির্যাতনের পর হত্যা করা হয়েছে ১৪৮ জন শিশুকে।

তারা বলেন, নারী-শিশু নির্যাতন এত ভয়াবহ মাত্রায় আসার একটি অন্যতম কারণ বিচারহীনতা। নির্যাতনের যত ঘটনা দেশে ঘটে তার অধিকাংশ ক্ষেত্রে মামলা হয় না। মামলা হলেও তার মধ্যে ৯৭ শতাংশ মামলায় কোনও সাজা হয় না। তাই নারী শিশু নির্যাতনকারী, ধর্ষক, হত্যাকারীর শাস্তি নিশ্চিত করা জরুরি।

তারা আরও বলেন, কোটা সংস্কার আন্দোলন একটি যৌক্তিক আন্দোলন। সেই আন্দোলনে শিক্ষার্থীদের ওপর বর্বর হামলা চালিয়ে, ছাত্রীদের নিপীড়ন করা হয়েছে। রাজশাহীর এক শিক্ষার্থীকে হাতুড়ি দিয়ে পিটিয়ে পায়ের হাড় ভেঙ্গে দেওয়া হয়েছে। কার্যত আমরা দেখতে পাচ্ছি আন্দোলনকারীরা মার খাচ্ছে, তাদের গ্রেফতার, রিমান্ডে নেওয়া হচ্ছে। অপরদিকে সন্ত্রাসীরা বহাল তবিয়তে আছে। অবিলম্বে এই হামলাকারী সন্ত্রাসীদের গ্রেফতার ও বিচারের আওতায় আনতে হবে।

সমাজতান্ত্রিক মহিলা ফোরামের কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক শম্পা বসুর সভাপতিত্বে মানববন্ধনে উপস্থিত ছিলেন, উপদেষ্টা মন্ডলীর সদস্য সামসুন নাহার জোৎনা, সাংগঠনিক সম্পাদক দিলরুবা নূরী, সমাজতান্ত্রিক ছাত্র ফ্রন্টের ঢাকা নগর শাখার সাধারণ সম্পাদক মুক্তা বাড়ৈ, নারী নেত্রী জেসমিন আক্তার, রুখসানা আফরোজ আশা প্রমুখ।

ব্রে‌কিং‌নিউজ/

Leave A Reply

Your email address will not be published.